অসাম্প্রদায়িক সমাজ গড়ার প্রত্যয়ে বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত

আপডেট: ডিসেম্বর ১৫, ২০১৬, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :



নগরীতে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শহীদ মিনারে শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন, ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণ, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার এ দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে এ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৭১ সালের এ দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের দোসর রাজাকার আলবদর, আল-শামস মিলিতভাবে বাংলার শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের নির্মমভাবে হত্যা করে। এ ঘটনার দুদিন পর ১৬ ডিসেম্বর বর্বর পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণ করে এবং স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটে। হানাদার পাকিস্তানি বাহিনী তাদের পরাজয় আসন্ন জেনে বাঙালি জাতিকে মেধাশূন্য করার লক্ষ্যে বুদ্ধিজীবী নিধনের এই পরিকল্পনা করে।
বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বিনয় ও শ্রদ্ধায় জাতির বিবেক শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করা হয়। অসম্প্রদায়িক সমাজ গড়ার প্রত্যয়ে বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়। একই সঙ্গে দেশবাসির প্রত্যাশা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের যারা হত্যা করেছে তাদের বিচারের রায় কার্যকর হওয়ায় দেশকে কলঙ্কমুক্ত করা হয়েছে। শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মহানগর আওয়ামী লীগ, জেলা আ’লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, পেশাজীবী, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
মহানগর আ’লীগ : এদিবস উপলক্ষে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বাদ মাগরিব এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথি থেকে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তব্য দেন, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। সভায় সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেনী। সভা পরিচালনা করেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। সভায় বক্তব্য  দেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসলাম সরকার।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাঈমুল হুদা রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আজাদ, আইন সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, মহিলা সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সি, মুক্তিযোদ্ধা সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সফিকুর রহমান রাজা, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক এএসএম ওমর শরীফ রাজীব, উপদফতর সম্পাদক  শফিকুল ইসলাম দোলন, উপ-প্রচার সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহমেদ লিমন, সদস্য আহসানুল হক পিন্টু, আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান বাবু, এনামুল হক কলিন্স, রবিউল আলম রবি, নগর শ্রমিক লীগ সভাপতি বদরুজ্জামান খায়ের, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোহেল, নগর যুবলীগ সভাপতি রমজান আলী, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আব্দুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকার, নগর মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সালমা রেজা, সাধারণ সম্পাদক কানিজ ফাতেমা মিতু, নগর যুব মহিলা লীগ সহ-সভাপতি তোহুরা খাতুন পপি, বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, মতিহার থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন, শাহ্মুখদম থানা সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন শাহুসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ। সভা শেষে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করে ঐতিহাসিক ভুবন মোহন পার্কে পুষ্পস্তবক অর্পন শেষে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
জেলা আ’লীগ : এদিবস উপলক্ষে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের প্রথম প্রহরে অর্থাৎ ১২টা ১ মিনিটে ভূবনমোহন পার্কের স্মৃতিস্তম্ভে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদ, আওয়ামী লীগ নেতা শফিকুল সরকার, জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এএইচএম খালেদ ওয়াশি কেটু, যুবনেতা মুজাহিদ হোসেন মানিক, রফিকুজ্জামান রফিক, শাহাদত হোসেন পিন্টু, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি রবিউল আলম বাবু, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক তাজবুল ইসলাম প্রমূখ।
সূর্যোদয়ের সাথে সাথে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৭ টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং সারাদিন দলীয় কার্যালয়ে মাইকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, মুক্তিযুদ্ধের গান বাজানো হয় এবং সন্ধ্যায় লক্ষ¥ীপুর মোড়ে মুক্তিযুদ্ধের উপর নির্মিত প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়।
রাবি : বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল, ছাত্র-শিক্ষক ও সাংস্কৃতিক-স্বেচ্ছাসেবী-পেশাজীবী সংগঠনগুলো।
এদিন সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসন ভবন, আবাসিক হল ও অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও শহিদ স্মৃতি সংগ্রহশালার উদ্যোগে প্রভাত ফেরি এবং রাবির শহিদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। নির্মাণাধীন এই শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকে এটাই প্রথমবারের মতো পুষ্পস্তবক অর্পণ। সকাল ৭টা ১৫মিনিটে রাবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করার পর বুদ্ধিজীবীসহ সকল শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরাবতা পালন করা হয়।
নীরাবতা পালন শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন সকল বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করে বলেন, ‘এর আগে রাবি শহীদ মিনারে কিংবা কবরস্থানে গিয়ে বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হতো। কিন্তু সকল ধর্মের লোকজনের কবরস্থানে যাওয়া সম্ভব হতো না। তাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এই শহিদ স্মৃতি ফলক নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত নেয়।’ এসময় তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক শহিদ শামসুজ্জোহা, শহিদ হবিবুর রহমান ও  শহিদ সুখরঞ্জন সমাদ্দারসহ নিহত সকল শিক্ষার্থী-কর্মচারী-কর্মকর্তাকে স্মরণ করেন।
এদিকে প্রশাসনের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর পরই রাবি শিক্ষক সমিতি, হল প্রশাসন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (রাবিসাস) ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের প্রভাত ফেরি ও পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।
এছাড়া বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। দর্শকদের জন্য সকাল ৮টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয় শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা।
রাজশাহী প্রেসক্লাব : এ দিবস উপলক্ষে রাজশাহী প্রেসক্লাবের আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেলে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতেই শহিদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গোলাম সারওয়ারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, সাংবাদিক কাজী রকিব উদ্দিন আহমেদ, মুক্তিযুদ্ধের তথ্য সংগ্রাহক ওয়ালিউর রহমান বাবু, দেশ টিভির বিভাগীয় প্রতিনিধি আতিক রহমান, মানবজমিনের স্টাফ রিপোর্টার আসলাম-উদ-দৌলা, ফটোসাংবাদিক রফিকুজ্জামান রানা, যুবনেতা আসাদুল হক দুখু প্রমুখ।
বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় : এ দিবস উপলক্ষে সকাল ৮টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার ও শহিদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়। কাজলা ভবন থেকে প্রভাত ফেরি বের হয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেট দিয়ে ঢুকে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার ও শহিদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।  শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য, যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের সাবেক হাইকমিশনর এবং বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. এম. সাইদুর রহমান খান, উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. ওসমান গনি তালুকদার, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. নূরুল হোসেন চৌধুরী, ব্যবসায় প্রশাসন ও আইন অনুষদের ডিন এবং ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. শেখ শামসুল আরেফিন, সামজিক বিজ্ঞান ও মানবিক অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তারিক সাইফুল ইসলাম, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান, আইন ও মানবাধিকার বিভাগের কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. আনিসুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর শহীদুর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ।
ইলা মিত্র শিল্পী সংঘ : এ দিবস উপলক্ষে ইলা মিত্র শিল্পী সংঘ রাত ১২টা এক মিনিটে নিজ কার্যালয় থেকে একটি শোকর‌্যালী নিয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে নগরীর ভূবণ মোহন পার্কের শহীদ মিনারে গিয়ে পুষ্পস্তাবক অর্পণ করে। পুষ্পস্তাবক অর্পণ শেষে বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড মডেল স্কুল ও কলেজ : এ দিবস উপলক্ষে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড মডেল স্কুল ও কলেজের উদ্যোগে বিশেষ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ তাইফুর রহমান। সুর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এক মিনিট নিবরতা পালন করা হয়। বুদ্ধিজীবী দিবসের তাৎপর্য সম্পর্কে বক্তব্য দেন, বন্দনা রাণী, ড. কাজী মো. ওয়াজীর হায়ার, মেহের সরদার, খলিলুর রহমান, মাহমুদা খাতুন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ মোশতাক আহমেদের পরিচালনায় শহিদের স্মরণে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
ন্যাপ কমিউনিষ্ট পার্টি ছাত্র ইউনিয়ন: এদিবসটি উপলক্ষে ন্যাপ কমিউনিষ্ট পার্টি ছাত্র ইউনিয়ন গেরিলা বাহিনীর উদ্যোগে সন্ধ্যায় একটি র‌্যালি বের হয়ে বাবলাবনের বদ্যভূমিতে শহীদের প্রতি মমবাতি প্রজ্জ¦ালন করে। পরে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এ কর্মসূচি পরিচালনা করেন, ন্যাপ কমিউনিষ্ট পার্টি ছাত্র ইউনিয়ন গেরিলা বাহিনীর সম্বন্নয়ক সিনিয়র অ্যাডভেকেট সাইদুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধা হাফিজুর রহমান, ইসমাইল হোসেন, বুলবুল রানী ঘোষ, আহম্মুদ আলী, শান্তি রঞ্জন, সাইফুজ্জামান তপন প্রমুখ।
প্রগতিশীল নাগরিক সংহতি: এদিবসটি উপলক্ষে নগরীর বাবলাবন শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। প্রগতিশীল নাগরিক সংহতির আহবায়ক ভাষা সৈনিক মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেন আখুঞ্জি শপথ পাঠ করান এবং তিনি সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য দেন, কলাম লেখক শাহ মো. জিয়াউদ্দিন, যুগ্ম আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা মিনহাজউদ্দিন মিন্টু, মুক্তিযোদ্ধা আলী আর্সলান অপু, সদস্য সচিব শিল্পী আজমল সাচ্চু, কেএম ওবায়দুর রহমান, মোরশেদ মুনজুর হাসান চুন্না, মুক্তিযোদ্ধা রণজিৎ বর্ধন, আবুল কালাম আজাদ, রেজাউল করিম খোকন, হাবিবুর রহমান তুহিন প্রমুখ।
বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল: এদিবসটি উপলক্ষে নগরীর বাবলাবন শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এতে সভাপতিত্বে করেন, সিপিবি জেলা সভাপতি কমরেড এনামুল হক ও পরিচালনা করেন, বাসদ জেলা আহ্বায়ক দেবাশীষ রায়। এসময় বক্তব্য দেন, সিপিবি জেলা সম্পাদক রাগিব আহসান মুন্না, সদস্য সচিব আলফাজ হোসেন, সিপিবি নেতা আমিত রায় প্রমুখ।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ: এদিবসটি উপলক্ষে জেলা কমান্ডার ফরহাদ আলী মিঞার সভাপতিত্বে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় বক্তব্য দেন, জেলা ইউনিটের নির্বাহী সদস্য কমান্ডার অ্যাডভোকেট আবদুস সামাদ, সহকারী কমান্ডার শেখ দিল মোহাম্মদ, আবদুস সাত্তার, সেনা আফিসার (অব:) মুক্তিযুদ্ধা আবুল হাসান খন্দকার, নগর সহকারী কমান্ডার অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক, সাজ্জাদুর রহমান, আবুল বাশার, প্রমুখ।
রুয়েট ছাত্রলীগ: এদিসবটি উপলক্ষে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে র‌্যালি শহীদ মাজারে পুষ্পুস্তব অর্পণ করা হয়েছে। এসময় রুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক চৌদুরী মাহফুচজুর রহমান তপু, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নীরেন্দ্র নাথ মুস্তাফী, গ্লাস ও সিরামিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ড. শামীম উর রহমান প্রমুখ। শহীদের প্রতি মমবাতি প্রজ্জ¦ালন করা হয়।