অস্কারে মনোনীত পাকিস্তানি ছবি ‘জয়ল্যান্ড’ নিষিদ্ধ নিজের দেশেই? কী নিয়ে মূল আপত্তি?

আপডেট: নভেম্বর ১৪, ২০২২, ৮:৩৪ অপরাহ্ণ

নিষিদ্ধ পাকিস্তানি ছবি ‘জয়ল্যান্ড’। ফাইল চিত্র।

সোনার দেশ ডেস্ক :


অস্কারের মঞ্চে যে কোনও দেশের ছবির মনোনয়ন পাওয়াটাই বেশ গর্বের। এ বার ভারতের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের ‘জয়ল্যান্ড’ ছবিটি মনোনীত হয়েছে অস্কারে। পাক পরিচালক সইম সাদিকের এই ছবি অস্কারের মনোনয়ন পেলেও নিজের দেশেই নিষিদ্ধ। ১৮ নভেম্বর ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল পাকিস্তানে। তার আগে ৬ অক্টোবর এই ছবির বিশেষ প্রর্দশনী হয়। কিন্তু মুক্তির দিন কয়েক আগেই, সেই দেশের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক থেকে পাকিস্তানের ১১টি রাজ্যে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ‘জয়ল্যান্ড’ ছবিটিকে।

অস্কারে মনোনয়ন পাওয়ার আগে পরিচালক সইম সাদিকের এই ছবি দেখানো হয় কান চলচ্চিত্র উৎসবে। ‘জয়ল্যান্ড’-এর হাত ধরে কান চলচ্চিত্র উৎসবে অভিষেক হয় পাকিস্তানের। এর আগে ২০১৯ সালে সইম সাদিক একটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি বানান। সেই ছবি ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসব ঘুরে আসে। পূর্ণদৈর্ঘ্যের ছবি এই প্রথম। আর সইমের প্রথম ছবিই ‘নিষিদ্ধ’ তকমা পেল।

ছবির গল্পটা কেমন?এই ছবি আসলে পাকিস্তানের পুরুষতান্ত্রিকতার উপর জোরদার আঘাত হেনেছে। ছবির যে প্রধান চরিত্র, সে পাকিস্তানের এক কট্টরপন্থী পরিবাররের ছেলে। পরিবার আশা করেছিল, সে ভবিষ্যতে বিয়ে করে পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়ে বংশ এগিয়ে নিয়ে যাবে কিন্তু সেই ছেলে গোপনে যোগ দেয় এক ইরোটিক ডান্স গ্রুপে। সেই গ্রুপের এক রূপান্তরকামী নারীর প্রেমে পড়ে যায়। এই বুনটে বাঁধা ছবির গল্প। এই ছবিতে অভিনয় করেছেন আলি জুনেজা, আলিনা খান, রাস্তি ফারুক, সলমন পীরজাদা, সারওয়াট গিলানি ও সোহেল সমীর। এই ছবি ব্যান করার কারণস্বরূপ বলা হয়েছে, ‘‘‘জয়ল্যান্ড’ ছবিটি দেশের সংস্কার বিরোধী, তাই দেখানো যাবে না।’’ পাকিস্তানের দর্শকদের একাংশ তীব্র ভর্ৎসনা করেছেন সরকারের এই সিদ্ধান্তকে।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ