অস্ট্রেলিয়ায় কাদের সঙ্গে খেলছেন এনামুল-লিটনরা?

আপডেট: জুলাই ৮, ২০১৭, ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিসিবির এইচপি দলের প্রতিপক্ষ নর্দার্ন টেরিটরির আমন্ত্রিত একাদশের অধিকাংশ খেলোয়াড়ই অনূর্ধ্ব-১৯ দলের। ছবি: ফেসবুক

অস্ট্রেলিয়া সফরটা দুর্দান্ত হচ্ছে বিসিবির হাইপারফরম্যান্স (এইচপি) দলের। ডারউইনের মারারা ক্রিকেট ওভালে নর্দার্ন টেরিটরি (এনটি) আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে সফরের প্রথম দুটি একদিনের ম্যাচেই জয় পেয়েছে এইচপি দল। সে ধারা অব্যাহত রেখেছে গতকালও। সাইফউদ্দিনের সেঞ্চুরিতে একই মাঠে একই প্রতিপক্ষকে হারিয়েছে ৪৩ রানে।
টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করা বিসিবি এইচপি করে ৮ উইকেটে ২৬৮। সাইফউদ্দিন অপরাজিত থাকেন ১০৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে। অ্যালেক্স গ্রেগরির ১৪৪ রানের অসাধারণ ইনিংসের পরও স্বাগতিকেরা করতে পেরেছে ২২৫। আগের ম্যাচে ৪ উইকেট পেয়েছেন, গতকাল সেঞ্চুরি-অন্য রকম ভালো লাগা কাজ করছে বাংলাদেশের হয়ে দুই টি-টোয়েন্টি খেলা সাইফউদ্দিনের, ‘বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি আছে। কিন্তু এই সেঞ্চুরিটা অন্য রকম আনন্দ দিচ্ছে। দেশের বাইরে এটাই আমার প্রথম সেঞ্চুরি।’
ইনিংসটা নিশ্চয়ই স্মৃতিতে যত্ন করে রাখতে চাইবেন সাইফউদ্দিন। পরিসংখ্যান কিংবা রেকর্ড বই তাঁকে কখনো এটা মনে করিয়ে দেবে না। এটা যুব ওয়ানডে কিংবা লিস্ট ‘এ’ স্বীকৃত ম্যাচ নয়। যদিও বিসিবি আগেই জানিয়েছে, এইচপি দল অস্ট্রেলিয়ায় কোনো সিরিজ খেলতে যাচ্ছে না। জাতীয় দল ও ‘এ’ দলের বিকল্প খেলোয়াড় প্রস্তুত রাখাই তাদের মূল উদ্দেশ্য।
কিন্তু এ উদ্দেশ্য কতটা পূরণ হবে, প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের এখন ছুটি চলছে। মৌসুম শুরু হতে ঢের বাকি। তাদের প্রাক-মৌসুমে বিসিবির এইচপি দল খেলছে অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চল ডারউইনে, যেখানকার কন্ডিশন বাংলাদেশের কাছাকাছি। দলের এক ব্যাটসম্যান বলছিলেন, ‘গরম আছে। তবে উইকেট বাংলাদেশের চেয়ে ভালো। স্পোর্টিং উইকেট। ব্যাটসম্যান-বোলারদের সবার জন্য ভালো।’
সফরের আগে বিসিবি নিশ্চিত হতে পারেনি নর্দার্ন টেরিটরি আমন্ত্রিত একাদশে কারা খেলবেন। শেষ পর্যন্ত যে দলটা লিটন-এনামুলদের বিপক্ষে খেলছে, তারা বেশির ভাগই বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের। দু-একজনের প্রথম শ্রেণির দু-তিনটি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও বেশির ভাগ এইচপির বিপক্ষে খেলছে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের জায়গা পাওয়ার লড়াইয়ে টিকে থাকতে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) ওয়েবসাইটও জানিয়েছে, নর্দার্ন টেরিটরির হয়ে কিছু তরুণ খেলোয়াড় খেলছে, যাদের লক্ষ্য আগামী বছর অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়া।
এঁদের মধ্যে আছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহর ছেলে অস্টিন ওয়াহ। আছেন অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ওপেনার রায়ান হ্যাকনি। তাঁদের সঙ্গে আছেন নিউ সাউথ ওয়েলশের অলরাউন্ডার টম সোডেন, উইকেটকিপার ব্যাক্সটার হল্ট। দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার টম ও’কনেল ও তাসমিনিয়ার জ্যারর্ড ফ্রিম্যানও আছেন। এই দলে খেলা পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলার ক্যামেরন গ্রিনের অভিজ্ঞতা আছে তিনটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলার। গতকাল সেঞ্চুরি করা গ্রেগরির অবশ্য ১৩টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে।
এনামুল হক, সাইফউদ্দিন, লিটন দাস, তানভীর হায়দার, আবু হায়দার, নাজমুল হোসেন শান্ত, আবুল হাসান, জুবায়ের হোসেনদের মতো আন্তর্জাতিক ম্যাচের অভিজ্ঞতা থাকা খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া বিসিবির এইচপি দলটা যে নর্দার্ন টেরিটরির বিপক্ষে যোজন এগিয়ে, বলার অপেক্ষা রাখে না। এইচপির জায়গায় যদি বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলটা খেলতে যেত অস্ট্রেলিয়ায়, সফরটা আরও তাৎপর্যপূর্ণ হতে পারত।-প্রথম আলো অনলাইন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ