অস্ট্রেলিয়া চায় ওয়ানডে, বাংলাদেশ খেলতে চায় টেস্ট

আপডেট: এপ্রিল ৪, ২০১৭, ১২:২২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আইসিসি ফিউচার ট্যুর প্ল্যান (এফটিপি) অনুযায়ী বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ার সফরটা হওয়ার কথা ২০১৫ সালে; কিন্তু নানা কারণে সেই সফর পেছাতে পেছাতে এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়নি। এফটিপি অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ার এই বছরের শেষের দিকেই বাংলাদেশে আসার কথা; কিন্তু সফরে টেস্ট খেলার পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়া চায় ওয়ানডে খেলতে। আবার বাংলাদেশ চায় টেস্ট খেলতে। অস্ট্রেলিয়ার চাওয়া অনুসারে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে এখন চলছে আলোচনা। ফরম্যাট এবং সময় নির্ধারণই বড় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সামনে।
এফটিপি অনুযায়ী ২০১৫ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ার যে সফর, সেখানে দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলার কথা ছিল তাদের; কিন্তু নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে তখন বাংলাদেশে দল পাঠায়নি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড। এরপর গত বছর জুলাইয়ে গুলশানের হলি আর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলার পর বাংলাদেশের কাছ থেকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাস পাওয়ার পর অক্টোবরেই বাংলাদেশ সফর করে ইংল্যান্ড। সেই সফরে বিসিবির নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা দেখে দারুণ সন্তুষ্ট ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। তখনই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে প্রতিনিধি পাঠায়। এরপরই চলতি বছরের জুলাই-আগস্টে বাংলাদেশ সফরের কথা জানিয়েছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)।
কিন্তু এখন টেস্ট নয়, অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড চাচ্ছে বাংলাদেশ সফরে ওয়ানডে খেলার জন্য। কারণ এ বছরের শেষ দিকে রয়েছে তাদের অ্যাশেজ সিরিজ। তার আগে অক্টোবরে ভারতের মাটিতে একটি ওয়ানডে সিরিজ খেলবে তারা। সেই সিরিজের প্রস্তুতির লক্ষ্যেই বাংলাদেশ সফরে ওয়ানডে খেলতে চায় অসিরা।
অন্যদিকে এফটিপি অনুযায়ী বাংলাদেশ চায় টেস্ট খেলতে। কারণ, ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল মুশফিকরা। আবার বিদেশের মাটিতে সদ্যই শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সুতরাং, ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার মত দলের বিপক্ষে নিজেদের প্রমাণ করার একটা বড় সুযোগ হারাতে চায় না বাংলাদেশ। সে সঙ্গে জুলাইয়ে প্রস্তাবিত পাকিস্তানের বাংলাদেশ সফরের ব্যাপারটিও মাথায় রাখতে হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে।
জুলাই-আগস্টে বাংলাদেশ সফর করার কথা রয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাবে বাংলাদেশ। বিসিবির পক্ষ থেকে তাই জোর দেওয়া হচ্ছে টেস্ট খেলার ব্যাপারেই।
বাংলাদেশ সফরের ব্যাপারে নিরাপত্তা ইস্যু সব সময়ই বড় বিবেচনা অস্ট্রেলিয়ার। তবে বাংলাদেশ সফর নিয়ে এবার আশাবাদী তারা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলীয় খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তাই আমাদের কাছে প্রধান। তবে এই সফর নিয়ে আমরা আশাবাদী। এ ব্যাপারে আমরা নিয়মিত অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও নিজস্ব নিরাপত্তা উপদেষ্টাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছি।’
২০০৬ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে তিনটি ওয়ানডে খেলেছিল বাংলাদেশ। ২০১১ বিশ্বকাপের পর অস্ট্রেলিয়া ঢাকায় এসে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিল। কিন্তু টেস্ট সিরিজ হয়নি এখনো। অথ্যাৎ, ২০০৬ সালের পর এখনও পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কোনো টেস্ট ম্যাচ খেলেনি বাংলাদেশ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ