আইএসআই-সেনা গৃহযুদ্ধ সিন্ধুতে

আপডেট: মে ১৩, ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সিন্ধু প্রদেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে পাকিস্তানি সেনা এবং দেশের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই। অভিযোগ পাকিস্তানের চতুর্থ বৃহত্তম রাজনৈতিক দল মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্টের (এমকিউএম) প্রধান আলতাফ হুসেনের। এই অবস্থায় রাষ্ট্রপুঞ্জ এবং আন্তর্জাতিক বিশ্বের হস্তক্ষেপ চাইলেন তিনি। তাঁর কথায়, খাইবা-পাখতুনখোয়া, সিন্ধু এবং সম্পূর্ণ বালুচিস্তানের নিয়ন্ত্রণ চলে গিয়েছে সেনা এবং আইএসআই-এর হাতে। লন্ডন থেকে অডিও বার্তায় হুসেন বলেছেন, ‘পাঞ্জাবি সেনার বিরুদ্ধে কথা বলায় হাজার হাজার বালুচ এবং পাখতুন মোহাজিরকে তারা হত্যা করছে।’ আন্তর্জাতিক বিশ্ব এখন বুঝতে পারছে, ওসামা বিন লাদেন, মোল্লা উমর, মোল্লা আখতারের মতো জঙ্গিদের জামাই আদর করে এনেছে পাকিস্তান। তিনি আরও বলেছেন, ১৯৯২ সাল থেকে মোহাজিরদের ওপর আক্রমণ শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ২০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন। সম্প্রতি ইরান জানিয়েছে, জঙ্গি শিবির বন্ধ না করলে তারা পাকিস্তানের ভিতরে হামলা চালাবে। সেই ঘটনা তুলে আলতাফ হুসেন বলেছেন, পাকিস্তান ক্রমশ একঘরে হয়ে পড়ছে।
১৯৮০ সালে জাতিগত প্রশ্ন তুলে আত্মপ্রকাশ করে এমকিউএম। করাচি, হায়দরাবাদ, মিরপুরখাস এবং সুক্কুরে যেখানে দেশভাগের পরে ভারত ছেড়ে ঊর্দুভাষী মানুষজন বসবাস শুরু করেন। যাঁদের মোহাজির বলা হয়। এই এলাকার প্রধান রাজনৈতিক দল এমকিউএম। – আজকাল