আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে আ’লীগ নেতাকে অপহরণ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৭, ১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


আবুল কালাম আজাদ- সোনার দেশ

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আবুল কালাম আজাদ (৫০) নামে অপহৃত ওই নেতা উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
গত বুধবার দিবাগত রাতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে তাকে তুলে নেয়া হয়েছে। আবুল কালাম আজাদ (৫০) বানেশ্বর বাজার বণিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতিও। বণিক সমিতির কার্যালয় থেকেই তাকে তুলে নেয়া হয়েছে।
আবুল কালাম আজাদের ছোট ছেলে আবু সাঈদ (২৫) বাদি হয়ে এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানায় একটি মামলা করেছেন। আবু সাঈদ জানান, রাত আটটার দিকে তার বাবা বানেশ্বর বাজারে বণিক সমিতির কার্যালয়ে বসে সমিতির কর্মচারীদের সঙ্গে চা খাচ্ছিলেন। কার্যালয়টি ভবনের দ্বিতীয় তলায়। একজন লোক নিচ থেকে উঠে এসে কথা বলার জন্য তার বাবাকে নিচে ডেকে নিয়ে যান।
এ সময় নিচে একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাস দাঁড়ানো ছিল। তার বাবা নিচে নামার সঙ্গে সঙ্গে পাশ থেকে চার-পাঁচজন লোক বাবাকে জোর করে ধরে গাড়িতে তুলে নিয়ে যান। গাড়িটি রাজশাহী-নাটোর সড়ক ধরে নাটোরের দিকে চলে যায়।
সাঈদ জানান, বণিক সমিতির কার্যালয়ে একজন কর্মচারী ওই গাড়ির নম্বর প্লে¬টের শেষের অংশ খেয়াল করেছেন। সেটি হচ্ছে ১২৭৩৪৬। নম্বর প্লেটের প্রথম অংশ তিনি দেখতে পাননি। আবু সাঈদ জানান, সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে রাতেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সেটি অপহরণের মামলা হিসেবে রেকর্ড করেছে।
সাঈদ আরও জানান, তার বাবার মুঠোফোন নম্বর (০১৭১২-৭৮৬২৪৪) ঘটনার পর থেকেই বন্ধ রয়েছে। তারা অনবরতই চেষ্টা করে যাচ্ছেন কিন্তু ফোনটি একবারের জন্যও খোলা পাননি।
পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান জানান, মামলায় অজ্ঞাতনামা চার-পাঁচজন লোককে আসামি করা হয়েছে। এ বিষয়ে তারা সব জায়গায় যোগাযোগ করেছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে তিনি আছেন এমন কোনো খবর তাদের কাছে নেই। আবুল কালামকে উদ্ধারে পুলিশ কাজ করছে বলেও জানান ওসি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ