বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

আক্কেলপুরে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ || উৎকোচ না দেয়ায় বাদীর বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দিয়েছে থানা পুলিশ

আপডেট: December 5, 2019, 1:13 am

আক্কেলপুর প্রতিনিধি


জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলাধীন গোপীনাথপুর ইউনিয়নের সোনার পাড়া গ্রামের মাহফুজুর রহমান গতকাল বুধবার সকাল ১১ টায় আক্কেলপুর উপজেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্য বলেন, গত ৮ আগস্ট তার প্রতিবেশী জিম হোসেন ও তার পরিবারবর্গ মাহফুজের বাড়ির জানালা সংলগ্ন স্থানে চুলার ছাই ফেললে উরন্ত ছাই জানালা দিয়ে মাহফুজের ঘরের ভিতর আসবাবপত্র এবং বিছানা নোংরা হয়। এতে মাহফুজের স্ত্রী মুনি বেগম ছাই ফেলতে নিষেধ করায় প্রতিপক্ষ মো. জোহা, মো. আনোয়ার হোসেন, মুসা সোনার ও রশিদা বেগমসহ আরও অনেকেই এসে তার পরিবারের লোকজনকে দেশিয় অস্ত্র দিয়ে মারপিট করে গুরুতর আহত করে এবং ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।
তাদের অস্ত্রের আঘাতে মাহফুজের মা গুরুতর আহত হলে তাকে জয়পুরহাট সদর হাসপাতালে এবং অন্যান্য আহতদের আক্কেলপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়।
এ ব্যাপারে আক্কেলপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করলে তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. শাহ্ আলম প্রাথমিকভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
তৎকালীন আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কিরণ কুমার রায় মামলাটি অন্যখাতে প্রবাহিত করার লক্ষ্যে জিম হোসেনের কাছ থেকে একটি কাউন্টার মামলা গ্রহণ করে আমাকে নানাভাবে হয়রানি করা শুরু করে।
প্রতিপক্ষগণ এতোটাই প্রভাশালী যে, তাদের ভয়ে এলাকায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না।
পরবর্তীতে এই মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব এসআই মো. জাহেদুল পান। তিনি মামলাটি সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য এবং সত্য প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আমার কাছে ১০ হাজার টাকা দাবি করলে আমি অনেক কষ্টে তাকে ৭ হাজার টাকা দেই।
মামলাটি আদালতে প্রেরণের পর খোঁজ নিয়ে জানতে পারি যে এসআই জাহেদুল আমার প্রতিপক্ষের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে সম্পূর্ণভাবে আমারই বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেছে।
আমি এই ভুয়া এবং মিথ্যা প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ন্যয় ও সঠিক বিচারের জন্য যাথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে সঠিক তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের আবেদন জানাচ্ছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ