আক্রমণাত্মক খেলার বৈধতা পেয়েছিলেন নবী

আপডেট: নভেম্বর ১৮, ২০১৬, ১১:৩৭ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
টানা হারের বৃত্তে আটকে থাকা চট্টগ্রামকে জয়ে ফেরাতে ব্যাট ও বল হাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন মোহাম্মদ নবী। শুক্রবার ব্যাট হাতে অপরাজিত ৮৭ রানের পর ৪ ওভারে ২৪ রান খরচ করে একটি উইকেটও তুলে নিয়েছিলেন। যার ফলশ্রুতিতে পেয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।
মূলত অধিনায়ক তামিমের কাছ থেকে ইতিবাচক ক্রিকেট খেলার নিশ্চয়তা পেয়েই এমন বিস্ফোরক ব্যাটিং করেছেন নবী। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘টানা চার হারের পর ম্যাচে ফেরা খুব কঠিন। কোচ এবং অধিনায়ক মাঠে নিজেদের শতভাগ দিতে আর নিজের খেলাটা খেলতে বলেছিল। কয়েকটা উইকেট হারালেও প্রথম ছয় ওভারে আমাদের শুরুটা ভালো ছিল। মাঝের ওভারগুলোতে আমরা ঠিকঠাক প্রয়োগ করতে পেরেছি। এটা ভালো স্কোর ছিল। আজকের পিচ ভালো ছিল। সবাই ভালো খেলেছে।’
বিপিএল-এ চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে খেলে দারুণ রোমাঞ্চিত মোহাম্মদ নবী। বিশেষ করে চিটাগংয়ের দুটি জয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার নবীকে আরও উজ্জীবিত করছে, ‘এভাবে পারফরম করতে পেরে আমি খুব খুশি। দলকে দুটি জয় এনে দেওয়া আর দুই ম্যাচেই সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতে আমি দারুণ আনন্দিত।’
তাই এমন পিচে ব্যাটিং করাটা বেশ আরামের বলেই মনে করেন মোহাম্মদ নবী, ‘পিচ খুব ভালো ছিল। আমরা ১৬০-১৭০ রানের লক্ষ্য করেছিলাম। যদি আমাদের হাতে উইকেট থাকে তাহলে শেষ পর্যন্ত চড়াও হতে পারব। ১৭তম ওভারের পর থেকে আমরা সুযোগগুলো নিতে থাকি এবং যত সম্ভব রান নিতে থাকি। মাঠে এই পরিকল্পনা কাজে লেগেছে।’
রাজশাহী কিংসের ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে বোলারদের পরিকল্পনা প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের পরিকল্পনা ছিল সঠিক লাইন ও লেংথে বল করা। প্রতি ওভারে ১১ রান করে করা খুব কঠিন।’-বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ