আগস্টে বাংলাদেশে আসছে অস্ট্রেলিয়া?

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৬, ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ২০১৫ সালেই বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। পরে নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে লাল-সবুজের মাটিতে খেলতে আসা বাতিল করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। এরপর কয়েকবার সফরটি সম্পর্কে পুনরালোচনার ইঙ্গিত দেয় সিএ। এবার তারা দিনক্ষণও ঠিক করে ফেলেছে বলে খবর। আগামী বছরের আগস্টে স্থগিত সিরিজটি খেলতে অজি দলের বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে সিএ’র ‘ইতিবাচক’ মনোভাবের কথা জানিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ।
ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ইতিবাচক হওয়ার শুরু ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরের সময় থেকে। নিরাপত্তা শঙ্কাকে পেছনে ফেলে গত সেপ্টেম্বরে ইংলিশরা যখন সাকিব-তামিমদের বিপক্ষে খেলায় ব্যস্ত, তখনই বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেতে এসেছিলেন সিএ’র নিরাপত্তা বিষয়ক প্রধান শন ক্যারল। ফিরে যেয়ে তিনি সফরের ব্যাপারে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছেন বলে সংবাদ মাধ্যমটি জানাচ্ছে। সেই সফরটি হতে যাচ্ছে ২০১৭ সালের আগস্টে। সেসময় অজি দলের ব্যস্ত ক্রিকেট সূচিতে খানিকটা ফাঁকা জায়গা রয়েছে। সেটাকেই স্থগিত সিরিজের জন্য কাজে লাগাতে চায় অজিরা।
তবে সফরের ব্যাপারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এখনো আনুষ্ঠানিক কিছু জানায় নি। বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতির উন্নতির বিষয়টি নিয়েও তাদের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য আসে নি। যদিও ক্যারল দেশে ফিরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও বাংলাদেশ সরকারের নিরাপত্তার আশ্বাস এবং পদক্ষেপ নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন বলে জানাচ্ছে টেলিগ্রাফ। তার ওপর ভিত্তি করেই বাংলাদেশ সফরে আসার বিষয়টি পুনর্বিবেচনা বসেছেন দেশটির ক্রিকেট কর্তারা।
অস্ট্রেলিয়ার অন্য গণমাধ্যমগুলো অবশ্য জানাচ্ছে, সফরের ব্যাপারে আগাম কোনো ঘোষণা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত সিএ’র পরিকল্পনারই একটা অংশ। তারা সফরে আসার আগ পর্যন্ত নিরাপত্তার বিষয়টি পর্যবেক্ষণে রাখবে। পরে আগস্টের আগে সুবিধাজনক কোনো সময়ে বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে চূড়ান্ত ঘোষণা দেবে। আর সফরে আসা না আসার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে অজি ক্রিকেটাররা পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করবেন।
উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে শেষবার দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। রিকি পন্টিংয়ের নেতৃত্বে সেই দলটি ফতুল্লা ও চট্টগ্রামে দুই টেস্ট খেলেছিল।-পরিবর্তনডটকম