আগামী দুইমাস কোন এনজিও বানভাসিদের কাছে কিস্তি নিতে পারবে না : প্রতিমন্ত্রী পলক

আপডেট: আগস্ট ২৭, ২০১৭, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

সিংড়া প্রতিনিধি


আগামী দুই মাস চলনবিল অধ্যুষিত সিংড়া উপজেলায় বানভাসি ও বন্যাদুর্গত মানুষের কাছ থেকে কোন বেসরকারি এনজিও কিস্তির টাকা আদায় করতে পারবে না। যদি কোন এনজিও বানভাসি মানুষের কাছে কিস্তির টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক।
গতকাল শনিবার সকাল থেকে নাটোরে সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া, ইটালী, বিয়াশসহ বিভিন্ন এলাকার বানভাসি মানুষদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। প্রতিমন্ত্রী এসময় আরো বলেন, বন্যার পানি নেমে গেলে বানভাসি মানুষরা অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল হলেই কেবল কিস্তির টাকা পরিশোধ করবেন। তার আগে কেউ কোন টাকা দিবেন না।
তিনি বলেন, বন্যার কারণে বানভাসিদের অনেকের ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যার পানি নেমে গেলে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে সামর্থমতো সাহায্য সহযোগিতা করে পুনর্বাসন করা হবে। এ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত  কোন ব্যক্তির কেউ বাদ যাবে না।
পলক আরো বলেন, গত দুই সপ্তা ধরে সিংড়া উপজেলার ২৬ আশ্রয় কেন্দ্রে তিন বেলা করে খাবার দেয়া হচ্ছে। এমনকি এই সময়ের মধ্যে ত্রাণ বিতরণে কোন বিশৃঙ্খলা হয় নি। বানভাসি এসব মানুষ যতদিন তাদের ঘরে ফিরে যেতে না পারবে, ততদিন পর্যন্ত তাদের মাঝে খাবার বিতরণসহ ত্রাণ সহায়তা দেয়া হবে। একটি মানুষও না খেয়ে থাকবে না বলে যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী। এসময় প্রতিমন্ত্রী প্রায় এক হাজার ৫শ বন্যার্ত মানুষের হাতে ত্রাণ তুলে দেন।
ত্রাণ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ওহিদুর রহমান শেখ, ডাহিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালামসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিক লীগসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।