আগেই আশায় ভোলাচ্ছেন না আকবর

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০২০, ১:১০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


শুরু হচ্ছে আরেকটি বিশ্বকাপ। দক্ষিণ আফ্রিকায় ১৮ জানুয়ারি মাঠে গড়াচ্ছে ১৬ দলের আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপ। কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে অবশ্য একটু আগেই দেশ ছাড়ছেন ক্রিকেটাররা। শুক্রবার রাতে রওনা হয়ে রবিবার জোহানেসবার্গে পৌঁছাবে আকবর আলীর দল। বাংলাদেশের কাছে এখনও বড় আক্ষেপের নাম আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ট্রফি। এবার কি আক্ষেপ ঘুচবে? যুবদলের অধিনায়ক আকবর আলী অবশ্য শিরোপা জয়ের আশা দিচ্ছেন না আগেভাগেই।
যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অবস্থান গ্রুপ ‘সি’তে। গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে, স্কটল্যান্ড ও পাকিস্তান। ১৮ জানুয়ারি উদ্বোধনী দিনেই বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে জিম্বাবুয়ের। গত বছর আকবর আলীর নেতৃত্বেই বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল দারুণ একটি বছর কাটিয়েছে। তাই তার দলের কাছে দেশের প্রত্যাশা একটু বেশিই। তবে আকবর আলী সতর্ক, প্রত্যাশার চাপে তিনি ভেঙে পড়তে চান না।
যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশের এবার বেশ ভালো করার সম্ভাবনা আছে। তবে আকবর আলী সেটিকে আগেই বড় করে তুলে ধরতে চান না, কারণ চাপটাকে তিনি দূরে রাখতে চান, ‘আমরা বেশ ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি। আমাদের অবস্থাও খুব ভালো। এ কারণেই সমর্থকদের প্রত্যাশা বাড়ছে। আমরা ফলাফলের দিকে তাকাচ্ছি না। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে প্রতিটি ম্যাচ ধরে এগিয়ে যাওয়া। তাই এখনই দূরে তাকাতে চাই না, কারণ সেটা আমাদের বাড়তি চাপের মধ্যে ফেলতে পারে। শেষ তিন চার মাসে যে প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করেছি বিশ্বকাপেও সেটাই ধরে রাখবো।’
গত বছর জুড়েই বাংলাদেশ যুবদলের নেতৃত্ব দিয়েছেন আকবর আলী। আর নেতৃত্বেই ইংল্যান্ডের মাটিতে দারুণ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছে তাদের মাঠে। সুতরাং যুব বিশ্বকাপে আকবরে অধিনায়কত্ব কেউ কেড়ে নিতে পারতো না। নিজের অধিনায়কত্ব নিয়ে আকবর বলেন, ‘অধিনায়কত্ব আমি উপভোগ করি। এটাকে বাড়তি চাপ হিসেবে নিতে চাই না। যখন আমি মাঠে থাকি চিন্তা করি যতটা সম্ভব উপভোগ করার। উইকেটকিপিং আর অধিনায়কত্ব দুটোই আমি মাঠে উপভোগ করি। বাড়তি চাপ নিই না। মাঠ ও মাঠের বাইরে আমি উপভোগ করি।’