আজভস্টলের ২৫৬ যোদ্ধার আত্মসমর্পণ, পুরো মারিউপোল রাশিয়ার দখলে

আপডেট: মে ১৭, ২০২২, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ইউক্রেনের মারিউপোল শহরের আজভস্টল স্টিল কারখানায় থাকা ২৫৬ জন ইউক্রেনীয় সেনা আত্মসমর্পণ করেছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়া জানায়, এসব ইউক্রেনীয় সেনারা তাদের অস্ত্র সংবরণ ও আত্মসমর্পণ করেছে। এদের মধ্যে ৫১ জন গুরুতর আহত। ইউক্রেন জানিয়েছে, আহত ৫৩ জনসহ মোট ২৬৪ সেনা স্টিল কারখানা ত্যাগ করেছে। ভেতরে থাকা অন্যদের সরিয়ে আনার কাজ চলমান রয়েছে। মঙ্গলবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, যোদ্ধারা কারখানা ত্যাগ করছে। কয়েকজনকে স্ট্রেচারে নেওয়া হচ্ছে। অন্যরা হাত উচিয়ে রয়েছে এবং রুশ সেনারা তাদের তল্লাশী করছে।

ইউক্রেনের সশস্ত্রবাহিনীর জেনারেল স্টাফ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মারিউপোল গ্যারিসন তাদের যুদ্ধের লক্ষ্য অর্জন করেছে। সুপ্রিম সামরিক কমান্ড আজভস্টলের কমান্ডারদের পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে সেনাদের জীবন বাঁচানোর জন্য। মারিউপোলকে রক্ষাকারীরা আমাদের সময়ের নায়ক।

এই আত্মসমর্পণের মাধ্যমে মারিউপোলে রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের লড়াইয়ের অবসান হলো। ধারণা করা হয়, রাশিয়ার বোমাবর্ষণ ও অবরোধে কয়েক হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়েছে।

শহরটি এখন বিধ্বস্ত। শহরটির পুরো নিয়ন্ত্রণ নেওয়া রাশিয়ার এখন পর্যন্ত যুদ্ধে বড় জয়। এর ফলে আজভ সাগরের উপকূলের পুরো নিয়ন্ত্রণ পেলো মস্কো।

তবে ইউক্রেনের অন্যত্র রাশিয়ার সেনারা গুরুত্বপূর্ণ অর্জনে ব্যর্থ হচ্ছে। খারকিভ ও উত্তর-পূর্বে রুশ সেনারা পিছু হটছে। এর আগে কিয়েভ দখলেও ব্যর্থ হয়েছিল তারা।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে ব্যাপক পরিসরে সামরিক অভিযান করলেও প্রত্যাশিত ফলাফল অর্জনে এখন পর্যন্ত ব্যর্থ রাশিয়া। উল্টো প্রথম থেকেই ধারাবাহিক সফলতা এসেছে ইউক্রেনের ঘরে। আক্রমণ শুরুর পর রাশিয়ার শীর্ষ কোম্পানি, ব্যাংক ও রাজনৈতিক অভিজাতদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

ইউক্রেনে রুশ আক্রমণের ফলে কয়েক হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়েছে এবং ঘরবাড়ি হারিয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। জ্বালানির বাজারে দেখা দিয়েছে অস্থিতিশীলতা। বেড়েছে খাদ্যশস্য, রান্নার তেল ও সারের দাম।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিনিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ