বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

আজ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন || কে আসছেন দলের নেতৃত্বে?

আপডেট: December 8, 2019, 1:09 am

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহী জেলা আ’লীগের সম্মেলনের মঞ্চ পরিদর্শনে সিটি মেয়র ও কেন্দ্রীয় আ’লীগের নির্বাহী পরিষদের সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন-সোনার দেশ

আজ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। সম্মেলন উপলক্ষে নগরজুড়ে সাজ সাজ রব। সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। তবে সবকিছু ছাপিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে মূল আলোচনার বিষয়বস্তু কে আসছেন কমিটির নতুন নেতৃত্বে? চলছে নানা সমীকরণ, লবিং-গ্রুপিং!
নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কয়েকদিন ধরেই নগরীতে আলোচনা চলছে কে আসছেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে। নেতাকর্মীরা সম্মেলন ঘিরে কষছেন নানা সমীকরণ! নেতারা লবিং করে পদ পাওয়ার চেষ্টা করছেন। তবে সবাই তাকিয়ে রয়েছেন দলের সভাপতির দিকে। একটা বিষয়ে তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে, সিলেকশনের মাধ্যমেই এবার কমিটি গঠন হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, কমিটির প্রধান দুই শীর্ষ পদ নিয়েই প্রধানত চলছে আলোচনা, সমীকরণ। বিভিন্ন স্থান থেকে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে মহানগর ও জেলার শীর্ষ নেতাদের মধ্যে কেউ বলছেন, জেলার শীর্ষ দুই পদেই পরিবর্তন আসবে, কেউ বলছেন শীর্ষ দুই পদের মধ্যে একটিতে পরিবর্তন আসতে পারে, আবার কেউ বলছেন নতুন মুখ আসবে কমিটিতে।
নেতাকর্মীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য থেকে ধারণা করা হচ্ছে, কমিটির বর্তমান সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ Ñএই দুইজনের কেউই এবার কমিটিতে থাকছে না। সেক্ষেত্রে তাদের স্থানে স্থলাভিষিক্ত হবে পুঠিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাংসদ এনামুল হক। আবার কেউ বলছেন, সভাপতি পদে এবার আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক লায়েব উদ্দিন লাবলু আসতে পারেন। অনেকের মধ্যে আলোচনা চলছে, জেলার কমিটিতে এবার সভাপতি পদে আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও সাধারণ সম্পাদক পদে আসতে পারেন সাংসদ আয়েন উদ্দীন।
আবার বিভিন্ন সংস্থা থেকে পাওয়া তথ্যের ঊদ্ধৃতি করে নেতাকর্মীদের মধ্যে কেউ কেউ বলছেন, এবার কমিটিতে শুধুমাত্র সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন আসবে। তার স্থানে স্থলাভিষিক্ত হবেন আব্দুল ওয়াদুদ দারা। আর সভাপতি থাকবেন ওমর ফারুক চৌধুরী। তবে কেউ কেউ বলছেন, সভাপতির পদ পরিবর্তন হলেও সাধারণ সম্পাদকের পদ বহাল থাকবে। এইরকম নানা ধরনের সমীকরণের কথা আলোচনা চলছে নেতাকর্মীদের মধ্যে।
জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সরকারের বিভিন্ন সংস্থার কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য থেকে অন্ততপক্ষে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে এবার জেলার নেতৃত্বে নতুন মুখ আসছে। সরকারের সংস্থা থেকে এমন তথ্যই জানানো হচ্ছে। সেক্ষত্রে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব খুঁজছেন। সেক্ষেত্রে কমিটিতে আসতে পারে সাংসদ এনামুল হক, সাংসদ মো. আয়েন উদ্দিন, সাবেক সাংসদ আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দীন লাবলু।
এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন ওমর ফারুক চৌধুরী। তবে কেন্দ্র থেকে দায়িত্ব দেয়া হলে আবারও জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিতে চান ওমর ফারুক চৌধুরী। আর সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ সভাপতি পদে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলেও কেন্দ্র থেকে যে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে তাই মেনে নেবেন আসাদ। এছাড়া সভাপতি হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন পুঠিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ আব্দুল ওয়াদুদ দারা এবং জেলার সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বেগম আকতার জাহান। সাধারণ সম্পাদক হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম সান্টু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক লায়েব উদ্দিন লাবলু, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন ও যুব মহিলালীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও রাজশাহীর সংরক্ষিত আসনের সাংসদ আদিবা আনজুম মিতা। এছাড়া পবা- মোহনপুর আসনের সাংসদ মো. আয়েন উদ্দিন ও বাগমার আসনের সাংসদ এনামুল হক প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করলেও কেন্দ্র থেকে মনোনীত করলে তারা দলের দায়িত্ব নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।
‘দেশরত্ন শেখ হাসিনার উন্নয়ন দর্শনে, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিশ্ব নেতৃত্বের আসনে’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে আজ রোববার সকাল ১০টায় রাজশাহী বিভাগীয় ক্রীড়া কমপ্লেক্সের মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম এমপি। প্রধান অতিথি থাকবেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।