আজ প্রদর্শিত হবে ‘দগ্ধ’ রাজশাহী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে

আপডেট: মার্চ ২১, ২০১৭, ১:১৬ পূর্বাহ্ণ

শামীউল আলীম শাওন


রাজশাহীতে চলছে পাঁচদিনব্যাপি ‘প্রথম রাজশাহী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৭’। এ চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপনী দিনে আজ (২১ মার্চ) নগরীর বড়কুঠি মুক্তমঞ্চে প্রদর্শিত হবে নাহিদ হাসান বিদ্যুৎ’র নির্মিত প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘দগ্ধ’।
আকাশ মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে আর পিউ ধনী পরিবারের মেয়ে। দু’জনের মধ্যে সামাজিক ও আর্থিক দিক থেকে অনেক পার্থক্য থাকার পরেও তাদের মধ্যে ছিল গভীর ভালোবাসা। কিন্তু অভিজাত পরিবেশে বেড়ে ওঠা পিউ সাধারণ পরিবেশে বেড়ে ওঠা আকাশের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে না। এক পর্যায়ে এ বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে দন্দ্বের সৃষ্টি হয় এবং পিউ আকাশের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। এভাবেই এগিয়ে চলে গল্প।
এমনই একটি গল্প নিয়ে তরুণ নির্মাতা নাহিদ হাসান বিদ্যুৎ নির্মাণ করেছেন ‘দগ্ধ’ শিরোনামের এ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি। বাংলাদেশ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের কম্পিউটার টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী নাহিদের বাড়ি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানিতে। তার বাবার নাম আব্দুল মান্নান আর মায়ের নাম সাহিনা বেগম।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও পদ্মা নদীর পাড়সহ রাজশাহীর বিভিন্ন মনোরম পরিবেশে চিত্রায়িত এ চলচ্চিত্রের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন, রাজশাহীর তরুণ অভিনেতা ও মডেল নাইমুজ্জামান আকাশ, পিউ আফরিন, ইস্তিয়াক বিন আলমগীর এবং নিরব রহমান। নাইমুজ্জামান আকাশের রচনায় নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হাইফেন ক্রিয়েশনের ব্যানারে নির্মিত এ চলচ্চিত্রে ডিরেক্টর অফ ফটোগ্রাফি করেছেন কাজী সিফাত। চিত্রগ্রহণ করেছেন জীহান খান, সহকারি চিত্রগ্রহক হিসেবে ছিলেন, ওলিউর আজীম। রুপসজ্জায় ছিলেন, সাইদুল ইসলাম স¤্রাট এবং সম্পাদনা করেছেন, নাদিম নীল।
চলচ্চিত্রটির নির্মাতা নাহিদ হাসান বিদ্যুৎ সোনার দেশকে বলেন, ‘নিমার্তা প্রতিষ্ঠান হাইফেন ক্রিয়েশনের ব্যানারে নির্মিত ‘দগ্ধ’ শিরোনামের এ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি আমার নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র। ওয়ালিউজ্জামান পরাগ ও ইনজামাম আল হক নাদিমের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। কারণ এ চলচ্চিত্র নির্মানে তারা আমাকে সহযোগিতা করেছেন। রাজশাহী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে আমার নির্মিত চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হবে এতে আমি আনন্দিত। আজ (২১ মার্চ) সন্ধ্যায় নগরীর বড়কুঠি মুক্তমঞ্চে গিয়ে চলচ্চিত্রটি সকলে দেখবেন বলেও তিনি আশাপ্রকাশ করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ