আজ মহান মে দিবস মানবিক দায়বদ্ধতায় দিবসটি তাৎপর্যময় হোক

আপডেট: মে ১, ২০২১, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

আজ মহান মে দিবস। মে দিবস আমাদের জাতীয় জীবনে এবং আন্তর্জাতিকভাবে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ত্যাগ ও মহিমান্বিত একটি দিন। বাংলাদেশসহ বিশ্বের মেহনতি ও গণতন্ত্রমনা মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে দিনটিকে পালন করে। কিন্তু গত বছরের মত এবারেও বৈশ্বিকভাবে করোনাভাইরাসের কারণে দিবসটি পালনে কোনো কর্মসূচি থাকছে না। তবুও মেহনতি মানুষ তাদের চেতনা ও অনুভবে দিবসটিকে স্মরণ করবে।
মেহনতি মানুষের জন্য এই দিনটি অত্যন্ত তাৎপর্যময় ও গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এ দিনটির মধ্যেই তাদের মানুষ সত্তার স্বীকৃতি মেলে। জীবন-জীবিকা ও মানব-মর্যাদার নৈতিক দায়বদ্ধতার বিশ্ব স্বীকৃতি অর্জনের এই দিন। মানব ইতিহাসে এ দিনটি উজ্জ্বল হয়ে আছে। মেহনতি মানুষের মহাজাগরণী-গাথা এই দিন যেখান থেকে মানুষ লড়াই-সংগ্রামে উৎসাহ- অনুপ্রেরণা লাভ করে থাকে।
যুগে যুগে দেশে দেশে সমাজে খেটে খাওয়া শ্রমিকশ্রেণি ও মেহনতি মানুষ দেশ-জাতির উন্নয়নে যথেষ্ট অবদান রেখেছে, তাদের মূল্যবান জীবন উৎসর্গ করেছেন। কিন্তু কোনো প্রতিকার হয়নি। যে কোনো দেশের উৎপাদন অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধিতে শ্রমিকরাই বড় হাতিয়ার হিসেবে কাজ করছে। আবার তারাই সবচেয়ে বেশি শোষিত-বঞ্চিত হয়েছে। নানা ধরনের নির্যাতনের শিকার হয়েছে।
বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে মালিকপক্ষ শ্রমিকদের বেতন বকেয়া রেখে উৎপাদন প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখতে চায়। এ নিয়ে মালিক ও শ্রমিকদের মধ্যে প্রায় দ্বন্দ্ব দেখা যায়। তাছাড়া আমাদের দেশে শ্রমিকদের একটি বড় অংশ নারী ও শিশু। এসব নারী ও শিশু বিভিন্ন কল-কারখানা, বিশেষ করে গার্মেন্টশিল্পে তারা বেশি কাজ করে থাকে। অথচ আমাদের সংবিধানে শিশুশ্রম নিষিদ্ধ। তথাপি বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে কাজ করেও তারা মানবেতর জীবনযাপন করছে। অনেকেই আবার জীবন ঝুঁকির মধ্যেও পড়ে যাচ্ছে। মারাও যাচ্ছে অনেক শ্রমিক। অথচ এসব শিশুদের বই হাতে স্কুলে যাওয়ার কথা। চলমান করোনাভাইরাস সংক্রমণকালে শ্রমিকদের প্রতি বৈষম্যে চেহেরাটা আবারো পরিষ্কার করে দেখা দিচ্ছে।
আসলে মালিকরা শ্রম বা শ্রমিকের মর্যাদা বুঝতে চায় না। একজন মানুষের জীবনধারণের জন্য যা যা প্রয়োজন, অর্থাৎ অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা- এসবই একজন শ্রমিকের প্রাপ্য। আর এটাই হচ্ছে শ্রমিকের প্রকৃত মর্যাদা। একুশ শতকে এসে শ্রমিকরা এর কতটুকু মর্যাদা বা অধিকার ভোগ করছে? বর্তমান রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক প্রেক্ষাপটে শ্রমিকশ্রেণির স্বার্থ নিয়ে অবশ্যই ভাবতে হবে। কারণ শ্রমিকরা এ দেশের সম্পদ। তাদের কারণেই দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রয়েছে। এ কারণে তাদের অবহেলার চোখে দেখা ঠিক নয়। পাশাপাশি তাদের কাজের ও জীবনের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করতে হবে। মহান মে দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অনুধাবন করতে হলে এর কোনো বিকল্প নেই।
মহান মে দিবসে সকল মেহনতি মানুষের প্রতি শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ