‘আত্মগোপনে’ থাকা রিজভী হঠাৎ নগরীর ঝটিকা মিছিলে

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০২৩, ৮:২০ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


এবার হঠাৎ ‘আত্মগোপনে’ থাকা বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে নগরীতে ঝটিকা মিছিলে অংশ নিতে দেখা গেছে। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) নগরীর তেরোখাদিয়া এলাকায় আবরোধের সমর্থনে করা মিছিলে অংশ নেন তিনি। পরে রিজভী কোথায় গিয়েছেন তা জানেন না স্থানীয় নেতারা। এমনকি রাজশাহীতে তার আসা ও মিছিলে অংশ নেওয়ার বিষয়টি নিজেদের অজানা বলে দাবি করেন তারা।

গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির মহাসমাবেশের ভন্ডুলের পর থেকে আত্মগোপনে যান দলের এ জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব। সময়-সময় তিনি লাইভে এসে দলের মুখপাত্র হিসেবে কর্মসূচির ঘোষণা দেন। সবশেষ দশম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের ঘোষণা দেন। এর আগে গত সোমবার তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

দশম দফায় ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের প্রথম দিনে বুধবার ভোর সাড়ে ৬টায় রাজশাহীতে মিছিলে অংশ নেন দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। মিছিলটি সিটি হাট রোডের ডাবতলা মোড়ে গিয়ে সমাবেশে রূপ নেয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন রিজভী।

সমাবেশে রিজভী বলেন, ‘জনবিচ্ছিন্ন আওয়ামী লীগ আবারও একটি পাতানো নির্বাচনের পথ ধরে এগোচ্ছে। তারা ভেবেছে, ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো সাজানো নির্বাচন করে পার পেয়ে যাবে। কিন্তু জনগণ এবার একতরফা নির্বাচন হতে দেবে না। সরকারের নীলনকশার এই নির্বাচন জনগণ যেকোনো মূল্যে রুখে দেবে।’

তিনি বলেন, ‘নব্বইয়ের ৬ ডিসেম্বর স্বৈরাচার এরশাদ যেমন জনরোষ থেকে বাঁচতে পারেনি, পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিল। এই সরকারও জনরোষ থেকে বাঁচতে পারবে না। বিজয়ের মাসেই গণ-অভ্যুত্থানেই তাদের পতন ঘটবে।’

রিজভী আরও বলেন, ‘জনগণ আজ জেগে উঠেছে। রাজপথে তীব্র আন্দোলন শুরু হয়েছে। দেশের মানুষ, ছাত্র-জনতা বিজয় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকবে, বাড়ি ফিরে যাবে না।’
এ সময় বিএনপির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য-বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী যুবদলের সদস্য-সচিব রেজাউল করীম টুটুল, যুগ্ম-আহ্বায়ক সাদ্দাম হোসেন, রনি প্রামাণিক, শাহনাজ খুরশীদ রিজভী, জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক শামীম সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ