আদমদীঘিতে প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা থেকে বাদ দেয়ার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আপডেট: মে ১৩, ২০২৪, ১০:২৩ অপরাহ্ণ


আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি:


বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার ১৮জন ভাতাপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাকে ভুয়া আখ্যায়িত করে তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে মানববন্ধন করা হয়েছে। সোমবার (১৩ মে) বেলা ১২টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে শহিদ মিনারের সামনে ঘণ্টাব্যপী এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ১৪ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বাক্ষরিত উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর একটি লিখিত পত্র প্রদান করা হয়েছে।

মানববন্ধনে বলা হয়েছে- বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) কর্তৃক ওই ১৮জন বীর মুক্তিযোদ্ধার গেজেট, ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও পরিচয়পত্র রয়েছে। তাঁরা বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা পেয়ে আসছেন। কতিপয় বীর মুক্তিযোদ্ধা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে প্রথমে ৩৭জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামে সাংবাদিকদের মিথ্য তথ্য দিয়ে তাদের ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা আখ্যায়িত করার অপচেষ্টা করেন এবং পরে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে ইউএনও’র নিকট ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে তাদের ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদী বন্ধের সুপারিশ করেন। ষড়যন্ত্রকারীরা

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে ‘ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা’ বলে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করছেন। ভুক্তভোগী বীর মুক্তিযোদ্ধারা মানববন্ধনের মাধ্যমে এসব ষড়যন্ত্রকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনী পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষদের নিকট জোড় দাবী জানান।

তাঁরা আরো বলেন, গেজেট, ডিজিটাল সনদ, পরিচয়পত্র ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধা সম্মিলিত তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তি, মুক্তিযোদ্ধার ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সনদ, মুক্তিবার্তা (লাল তালিকা) নাম অন্তর্ভুক্তিসহ সরকারের প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বিভিন্ন তালিকায় তাদের নাম উল্লেখ রয়েছে। অথচ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত মিথ্যা অভিযোগকারী ২২জন বীর মুক্তিযোদ্ধারা এসব বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মানিত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, জামুকা কর্তৃক যাচাই কমিটির সভাপতি ও মুক্তি যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আজমল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা হবিবর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর উদ্দিন মন্ডল, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাজ্জাদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজালাল, বীর মুক্তযোদ্ধা জাহেদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়েন উদ্দিন। মৃত মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে রাঙ্গা হোসেন, মাছুমমা, রেহেনা, আকলিমা প্রমূখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version