আন্ডারডগ হিসেবে শুরু করতে চায় মুক্তিযোদ্ধা

আপডেট: এপ্রিল ৩০, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের শুরুতে সবচেয়ে আলোচিত নাম ছিল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। তিন রাউন্ড পর্যন্ত তারা ছিল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। তবে তারা লিগ শেষ করেছিল পাঁচ নম্বরে থেকে। নতুন মৌসুমে ক্লাবটি ওই পাঁচ নম্বরের ওপরে ভাবতে চায় না। গতবারের অবস্থানটা ধরে রাখাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। শনিবার খেলোয়াড়দের রেজিষ্ট্রেশন করাতে এসে ক্লাবের নতুন কোচ মাসুদ কায়সার পারভেজ বলেছেন, ‘আমরা আন্ডারডগ হিসেবে মৌসুম শুরু করতে চাই। আর গতবারের অবস্থানটাকে ধরে রাখতে চাই।’
মাঠের কারণে প্রস্তুতিটা ভালোভাবে শুরু করতে পারেনি মুক্তিযোদ্ধা। ক্লাবটি সব সময় অনুশীলন করতো মুক্তিযোদ্ধা যাদুঘর মাঠে। এবার সেখানে কোনো ক্লাব এ সুযোগ পাচ্ছে না। নতুন কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সার বলেছেন, ‘১০ এপ্রিল প্রাক-প্রস্তুতি শুরু করেছি। অনেক সমস্যা আমাদের, যার অন্যতম মাঠ সংকট। তাই রূপগঞ্জ থানায় একটি স্কুলের মাঠ ৩ বছরের জন্য ভাড়া করেছি। মাঠটির সংস্কার চলছে। আমাদের বিদেশি খেলোয়াড় যারা আছেন, তারা ভালো মানের। আশা করি, একটা টিম হয়ে খেলোয়াড়রা ভালো খেলা উপহার দেবে।’
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের সহসভাপতি মাহবুবুল হক চিশতী বলেছেন, ‘আমরা আসলে বিগ বাজেটের দল গড়তে পারিনি। কারণ আমাদের স্পন্সর নাই। আমরা ক্লাবের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই অনেক কষ্টে ক্লাবের ব্যয়ভার পরিচালনা করি। তাই বলে কোনো খেলোয়াড়দের পেমেন্ট আটকে থাকবে না। অর্থের দিক থেকে আমরা দুর্বল হলেও আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে ছেলেরা মাঠে ভালো করবে। কারণ আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী একটি দল।’
মুক্তিযোদ্ধা ফুটবল দল : গোলরক্ষক : উত্তম বড়ুয়া, লালু, আজাদ, দিপু। ডিফেন্ডার : সাইদুল, মহাদেভ, সৈকত ভৌমিক, সৈকত, নাহিদ, মনির, রানা, আব্বাস (ঘানা), ফয়েজ, রুবেল, আলমগীর। মিডফিল্ডার : শ্যামল, বিপুল, রাসেল, দিদার, অনিক, মালেক, শিহাব, কায়েস, রোহিত, ছোটন, কলিন্স (নাইজেরিয়া)। আক্রমণভাগ : সৈকত, শামিম, তৌহিদ, জাকি ইসলাম (মিশর), মতি।