আবেদনে হেরে গেলেন প্লেসিস

আপডেট: ডিসেম্বর ২২, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বল টেম্পারিংয়ের রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করেছিলেন প্রোটিয়া টেস্ট অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসিস।  শেষ পর্যন্ত সেখানেও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।  যদিও বড় কোনও শাস্তি আর পেতে হয়নি।  আগের রায়টিই বহাল থাকছে।
বল টেম্পারিংয়ের রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করেছিলেন ফাফ দু প্লেসিস। ভেবেছিলেন আশার আলো দেখবেন। কিন্তু তাতেও লাভ হলো না! তার আবেদনে সাড়া দেননি এই বিচার কাজে যুক্ত জুডিশিয়াল কমিশনার মাইকেল বেলফ। আবেদনে হেরে যাওয়ায় আগের শাস্তি হিসেবে ম্যাচ ফির ১০০ ভাগ জরিমানাই বহাল থাকছে প্রোটিয়া টেস্ট অধিনায়কের। সঙ্গে ৩ ডিমেরিট পয়েন্টও থাকছে।
যদিও বলা হচ্ছিল রায়ের বিরুদ্ধে হেরে গেলে বড় শাস্তি হিসেবে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পাবেন। কিন্তু সে দিকে আর যাননি জুডিশিয়াল কমিশনার। গত মাসে হোবার্ট টেস্টে টেম্পারিংয়ে দোষী প্রমাণিত হওয়ার পর থেকেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন ফাফ দু প্লেসিস। দাবি করছিলেন অবৈধ কিছু করেন নি। নিজের দাবিকে আরও জোরালো করতেই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। যেই ঘটনায় হতাশা প্রকাশ করেছিল আইসিসি। এমনকি আইসিসির টেম্পারিং সংক্রান্ত আইন নিয়ে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার মন্তব্যের সঙ্গেও একমত নয় সংস্থাটি। আর প্লেসিসের আবেদনটি যে তার পক্ষে যাচ্ছে না সেটা আগেই নিশ্চিত হয়ে যায় মুম্বাইয়ে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নকারী সংস্থা এমসিসির সভাতেই। এর প্রধান জন স্টিফেনসন দাবি করেছিলেন অনৈতিকভাবে আইন ভেঙেছেন প্লেসিস। যেহেতু তার ওপর কোনও নিষেধাজ্ঞা আসেনি। তাই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টে তার খেলা নিয়ে কোনও সংশয় থাকলো না।-ক্রিকইনফো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ