আমিরাতি যুবরাজকে ‘শয়তান’ বললেন সৌদি প্রিন্স

আপডেট: জুলাই ২৭, ২০১৭, ১২:৫২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আবদুলআজিজ বিন ফাহাদসংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ-এর কঠোর সমালোচনা করেছেন সৌদি প্রিন্স আবদুলআজিজ বিন ফাহাদ। টুইটারে দেওয়া পোস্টে আবুধাবি’র এই ভবিষ্যৎ কর্ণধারকে তিনি শয়তান, ভিলেন ও কাপুরুষ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক আমিরাতি নাগরিক একটি ছবি পোস্ট করেন। এতে সৌদি রাজা সালমানের পাশেই ছিল আমিরাতি যুবরাজের ছবি। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ওই ছবিকে প্রতারণাপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন প্রিন্স আবদুলআজিজ। আমিরাতি প্রিন্সের উদ্দেশ্যে টুইটারে তিনি লিখেছেন, সালমানের সামনে আপনার ছবি রাখবেন না। বিন জায়েদ একটা  ‘শয়তানি কালো মুখ’।
উল্লেখ্য, আফগানিস্তানে মার্কিন আগ্রাসন চলাকালে আল জাজিরা টেলিভিশন গুঁড়িয়ে দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন এই আমিরাতি যুবরাজ। এক্ষেত্রে তার যুক্তি ছিল, সংবাদমাধ্যমকে বর্জন করা হলে আফগানিস্তানে বেসামরিক মানুষজনের হতাহতের খবর প্রকাশ পাবে না।
সৌদি প্রিন্স আবদুলআজিজ বলেন, ইসলামবিদ্বেষী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অনুসারী আমিরাতি প্রিন্স মুসলিমদের বিভ্রান্ত ও প্রতারিত করছেন।
কয়েকদিনের মধ্যে এটা এই সৌদি প্রিন্সের দ্বিতীয় আলোচিত টুইট। এর আগে জেরুজালেমের পবিত্র আল আকসা মসজিদে ইসরায়েলি তা-ব নিয়ে তার টুইট ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছিল। ওই টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘সামর্থ্য অনুযায়ী প্রত্যেক মুসলিম ফিলিস্তিনে এবং পবিত্র আল আকসা মসজিদে আমাদের ভাইদের সমর্থন করতে বাধ্য। হে মুহাম্মাদের জাতি, তাদের দেখিয়ে দাও তোমরা কারা। আল আকসাকে অবহেলা করাটা হবে অসম্মানজনক। সৃষ্টিকর্তা আমাদের কাছে এর জবাব চাইবেন।’
অন্য এক টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘হে মুহাম্মাদের জাতি, আমাদের তৃতীয় কিবলা দখলদারদের হাতে বন্দি। আমাদের মধ্যে কী কোনও প্রজ্ঞাবান ব্যক্তি নেই? আসুন লড়াই করি। আমাদের বিজয়ী হয়ে এই পবিত্র ঘরের সংরক্ষণ করতে হবে। আর সে লড়াইয়ে ব্যর্থ হলেও আমাদের রব আমাদের ক্ষমা করবেন।’ সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ