‘আমি মালালা নই, দেশ ছেড়ে পালাই-নি’, নোবেল-জয়ীকে খোঁচা কাশ্মীরের সমাজকর্মীর

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪, ৩:১০ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :‘আমি মালালা ইউসুফজাই নই। কেননা আমি দেশ ছেড়ে পালাইনি।’ এভাবেই শান্তিতে নোবেলজয়ী পাক তরুণীকে কটাক্ষ করলেন কাশ্মীরের সমাজসেবী ইয়ানা মির। ব্রিটেনের পার্লামেন্ট ভবনে দাঁড়িয়েই তিনি জানিয়ে দিলেন, কাশ্মীরে তিনি নিরাপদে রয়েছেন। এই ভাষণ কার্যত ভাইরাল হয়ে হয়েছে।

কাশ্মীরের প্রথম নারী ভ্লগার ইয়ানা একজন সাংবাদিকও। এদিন মালালা সম্পর্কে তিনি কার্যত ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমার দেশ, আমার উন্নয়নশীল মাতৃভূমিকে’ বলে দুর্নাম করার আমি আপত্তি করছি মালালা ইউসুফজাই। এই ধরনের ‘টুলকিট সদস্য’ ও বিদেশি সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা দরকার। এঁরা কখনও কাশ্মীরে আসেন না। কিন্তু বাইরে থেকে বানানো গল্প তৈরি করেন।” তাঁর দাবি, তিনি কাশ্মীরে অত্যন্ত নিরাপদ রয়েছেন।
সেই সঙ্গে তাঁর আবেদন, ‘আমি আপনাদের কাছে আবেদন করছি, ধর্মের ভিত্তিতে ভারতীয়দের মধ্যে মেরুকরণ না করতে। আমি আপনাদের আমাদের ভাঙতে দেব না।’

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে বুলেটের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গিয়েছিল নোবেলজয়ী মালালার মস্তিষ্কের বাঁ দিকের অংশ। একসময় পুরোপুরি অনুভূতিহীন হয়ে পড়েছিলেন তিনি। কিন্তু মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসেন ১৫ বছরের পাক কিশোরী। লড়াকু নারী হিসেবে অনেকেরই অনুপ্রেরণা তিনি। সব থেকে কম বয়সে পেয়েছেন নোবেল শান্তি পুরস্কার। এবার তাঁকেই আক্রমণ করলেন কাশ্মীরের সমাজকর্মী।
তথ্যসনূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version