‘আমেরিকাকে হামলার দায় স্বীকার করে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’

আপডেট: মে ২৩, ২০২২, ১২:০৩ অপরাহ্ণ

২০১৯ সালের ১৮ মার্চ বাগুজ শহরে মার্কিন সেনাদের বিমান হামলার ঠিক পরের দৃশ্য (ফাইল ছবি)

সোনার দেশ ডেস্ক :


সিরিয়ার বেসামরিক নাগরিকদের ওপর ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়ে আমেরিকা কোনো ভুল করেনি বলে পেন্টাগন যে দাবি করেছে তা কঠোর ভাষায় প্রত্যাখ্যান করেছে সিরিয়া। দামেস্ক বলেছে, ওই ভয়াবহ হামলার দায় স্বীকার করে তার সব ক্ষতিপূরণ ওয়াশিংটনকে বহন করতে হবে।

সেই সঙ্গে সিরিয়া থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করারও আহŸান জানিয়েছে দেশটি।
২০১৯ সালের ১৮ মার্চ সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় দেইর আজ-জোর প্রদেশের বাগুজ শহরে মার্কিন সেনারা কথিত দায়েশ সন্ত্রাসীদের একটি ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালায়। ওই হামলায় বেসামরিক নাগরিকসহ ৭০ ব্যক্তি নিহত হন।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন দীর্ঘ তদন্ত শেষে দাবি করেছে ওই হামলায় ‘যুদ্ধের আইন’ লঙ্ঘন হয়নি। পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি দাবি করেন, ওই হামলায় ৫৬ জন নিহত হন যাদের মধ্যে চারজন ছিল বেসামরিক নাগরিক। তার ভাষায় ওই বেসামরিক ক্ষয়ক্ষতি এড়ানোর উপায় ছিল না।

পেন্টাগনের এই দাবি সম্পর্কে জাতিসংঘে নিযুক্ত সিরিয়ার স্থায়ী মিশন বলেছে, ২০১৯ সালের ওই হামলার সময় রাশিয়া ও ইরানের সহযোগিতায় সিরিয়ার সেনাবাহিনী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছিল। কাজেই সিরিয়ার ভূখণ্ডে মার্কিন হামলাটি ছিল সম্পূর্ণ অবৈধ ও বেআইনি।

মার্কিন সেনাদের কেউ সিরিয়ায় হামলা চালানোর জন্য ডেকে আনেনি এবং এখনও দামেস্ক মার্কিন সেনাদেরকে অযাচিত বলে মনে করছে।
জাতিসংঘে নিযুক্ত সিরিয়ার স্থায়ী মিশন দেশটির উত্তরাঞ্চলে অবৈধভাবে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নেওয়ার জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহŸান জানিয়েছে।
তথ্যসূত্র: পার্সটুডে, বাংলানিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ