বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

আমেরিকার গরু আমিষ খায়, তাই দুধ আমদানি বন্ধ

আপডেট: February 17, 2020, 12:36 am

সোনার দেশ ডেস্ক


মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরে বাকি আর মাত্র ১০ দিন। এ সফরে উল্লেখযোগ্য বাণিজ্য চুক্তির মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দুধ আমদনি। কিন্তু শেষ সময়ে এসেও রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) আপত্তির মুখে আটকে গেছে এই চুক্তির সম্ভাবনা।
ভারতের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনটির দাবি, হিন্দুদের কাছে গরুর দুধ নিরামিষ। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে গরুকে অন্য প্রাণীর অঙ্গপ্রত্যঙ্গ, রক্ত-মাংস খাইয়ে হৃষ্টপুষ্ট করে তোলা হয়। আরএসএসের যুক্তি, গরু আমিষ খেলে তার দুধও আমিষ হয়ে যায়। ওই আমিষ দুধ পূজা বা যজ্ঞে আর ব্যবহার করা যাবে না। এছাড়া নিরামিষভোজী হিন্দুরাও ওই দুধ পান করতে পারবেন না।
এ কারণে মোদি সরকারের কাছে সংগঠনটির জোর দাবি, কোনওভাবেই দেশে আমিষ দুধ বা এ থেকে তৈরি অন্যান্য ডেইরি পণ্য ঢুকতে দেয়া যাবে না।
ট্রাম্প প্রশাসন বহু দিন ধরেই চাইছে, তাদের দেশের দুধ ও ডেইরি পণ্যের জন্য ভারতের বাজার খুলে দেয়া হোক। কিন্তু প্রভাবশালী সংগঠন আরএসএসের আপত্তির মুখে এই চুক্তি হবে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রের খবর, নরেন্দ্র মোদির যুক্তরাষ্ট্র সফরকালে ‘হাউডি মোদি’র সময়ও বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে দর কষাকষি হয়েছিল। কিন্তু আমিষ দুধ নিয়ে বিতর্ক না মেটায় সেই চুক্তি আর হয়নি।
আরএসএসের অংশ স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের যুগ্ম-আহ্বায়ক অশ্বিনী মহাজন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র চায় ভারত এই শর্ত তুলে নিক। কিন্তু তাদের বুঝতে হবে, এটি অন্যায্য নয়। ধর্মীয় কারণে এই দাবি মেনে নেওয়া যায় না।
গরুর দুধ ছাড়া দুই দেশের মধ্যে ঝামেলা আছে মুরগির পা নিয়েও। ভারত যুক্তরাষ্ট্র থেকে মুরগির ‘লেগ পিস’ আমদানি করলেও তাতে ১০০ শতাংশ শুল্ক বসানো আছে। ট্রাম্প চান, ওই শুল্ক কমিয়ে ২৫ শতাংশ করা হোক। কিন্তু এতেও আপত্তি আছে আরএসএসের। ফলে ট্রাম্পের ‘অনেক সাধের’ ভারত সফরে আশানুরূপ বাণিজ্য চুক্তি হবে কি না, তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়।
সূত্র: আন্দবাজার পত্রিকা