আমেরিকায় ছ’মাসের মধ্যে হামলা চালাতে পারে আফগান আইএস! সতর্ক করল পেন্টাগন

আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০২১, ৬:৫৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


আফগানিস্তান নিয়ে আমেরিকার মাথাব্যথা কমার লক্ষণ নেই। সে দেশের কংগ্রেসকে সতর্ক করে পেন্টাগনের হুঁশিয়ারি, আগামী ছ’মাসের মধ্যে আমেরিকায় বড়সড় হামলা করতে সক্ষম হয়ে উঠেছে আফগানিস্তানের আইএস।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর জোড়া বিমান হানায় কেঁপে উঠেছিল আমেরিকা। ধুলোয় মিশে গিয়েছিল ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার। হামলার মূল হোতা ওসামা বিন লাদেনকে আশ্রয় দিয়েছেন আফগানিস্তানের তালিবান নেতৃত্ব, এই অভিযোগে আফগানিস্তানে হামলা চালায় আমেরিকা।

তার পর কেটে গিয়েছে দু’দশকের বেশি সময়। লক্ষ লক্ষ কোটি ডলার খরচ করে, বহু প্রাণের বিনিময়ে আফগানিস্তানে আমেরিকার জঙ্গি দমন অভিযান চলেছে। শেষপর্যন্ত ২০২১ সালের অগস্ট মাসে পাকাপাকি ভাবে আফগানিস্তানের মাটি ছাড়ে আমেরিকা। কিন্তু যে উদ্দেশে আফগানিস্তানে এত বিপুল সময় ও অর্থ খরচ করল জো বাইডেনের দেশ, তা পূরণ হয়েছে কি?

এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার আগেই, আফগান আইএস হামলা করতে পারে এমন খবরে তোলপাড় ওয়াশিংটন। পেন্টাগন সূত্রে খবর, তালিবান শাসিত আফগানিস্তানে ইদানীং এলাকা গোছাচ্ছে আইএস। একই সঙ্গে নতুন করে দলবদ্ধ হওয়া শুরু করেছে আল-কায়দা। এই জোড়া আশঙ্কাকে কী ভাবে মোকাবিলা করবে তালিবান? কাবুল দখলের আগে থেকেই তালিবান নেতৃত্ব জানিয়ে আসছে, আফগান-ভূম ব্যবহার করে অন্য কোনও দেশে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ বরদাস্ত করা হবে না। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে তালিবানের প্রশাসনিক দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করে অন্য কোনও দেশে হামলা চালাবে না আফগান আইএস, তার নিশ্চয়তা যেমন নেই আমেরিকার কাছে, তেমনই সন্দিহান তালিবান নিজেও।

পেন্টাগন সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে আল-কায়দা বড়সড় হামলা করার মতো অবস্থায় নেই। কিন্তু আফগানিস্তানে কোলাহলের সুযোগে তারাও নতুন করে দলবদ্ধ হতে শুরু করেছে। পেন্টাগনের দাবি, আফগানিস্তানের বাইরে হামলা চালানোর মতো ক্ষমতা অর্জন করতে আল-কায়দার এখনও এক-দু’বছর সময় লাগবে। কিন্তু আফগান আইএস আগামী ছ’মাসের মধ্যেই আমেরিকায় হামলা চালাতে সক্ষম হয়ে উঠেছে। যা ওয়াশিংটনের কর্তাদের কপালে ভাঁজ গভীর করেছে।

সব মিলিয়ে আফগানিস্তানের মাটি থেকে পাকাপাকি ভাবে সরে গেলেও, আফগান-আতঙ্ক এখনও পিছু ছাড়ছে না আমেরিকার।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ