আম ফাউন্ডেশন ভোলাহাট এর কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত

আপডেট: মে ১৫, ২০২২, ১০:৪৭ অপরাহ্ণ

ভোলাহাট প্রতিনিধি:


চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম ফাউন্ডেশন ভোলাহাট এর ত্রিবার্ষিক কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন ভোলাহাট রামেশ্বর পাইলট ইনস্টিটিউশনে শনিবার (১৪ মে) অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ও সুন্দর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ৯ টা থেকে একটানা বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৫২৫৩টি।

এর মধ্যে কাস্টিং ভোটের সংখ্যা ছিল ৩৮৫৮ টি। মোট বৈধ ভোটের সংখ্যা ছিল ৩৬৩৬টি এবং বাতিল ভোটের সংখ্যা ছিল ২২২টি। ভোট পড়ার হার ৭৩.৪০ পার্সেন্ট। আম ফাউন্ডেশন এর মোট ব্লক সংখ্যা বা এলাকা সংখ্যা ছিল ১৮ টি। ফাউন্ডেশনের মূল পদসমূহ ছিল ৬ টি। যেগুলো পদে নির্বাচন করা হয় সেগুলো হলো সহসভাপতি পদে ২ জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ১ জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন এবং কোষাধ্যক্ষ পদে ১ জন।

এছাড়াও আঠারোটি এলাকায় ১ জন করে এলাকা প্রতিনিধি নির্বাচন করা হয়। এবারের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী সংখ্যা ছিল ৬ জন। এদের মধ্যে মোহাম্মদ মুনসুর আলী হাসমার্কা নিয়ে ১৩৫৮টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ আতাউর রহমান মোটরসাইকেল মার্কা নিয়ে ১০২৯ টি ভোট পেয়েছেন। একই পদে মোহাম্মদ আতাউর রহমান রজব চশমা মার্কা নিয়ে ৯৫৮টি, মোহাম্মদ আব্দুস সোবহান মাস্টার দেওয়াল ঘড়ি মার্কা নিয়ে ২৭৫টি, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মাস্টার টেবিল মার্কা নিয়ে ০৯ টি ও মোহাম্মদ আরজেদ আলী ভুটু তাল মার্কা নিয়ে ০৭টি ভোট পেয়েছেন।

সহসভাপতি পদে মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন চেয়ার মার্কা নিয়ে ২১৩২টি ও মোহাম্মদ মৌদুদুর রহমান রনি আনারস মার্কা নিয়ে ২০৯৪ টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এই পদে মোহাম্মদ আনসার আলী মেম্বার হরিণ মার্কা নিয়ে ১৩২৮ টি ও মোহাম্মদ ইব্রাহীম আলী (সেলিম) বই মার্কা নিয়ে ৩৬৭টি ভোট পেয়েছেন।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে মোহাম্মদ রবিউল ইসলাম ঘুড়ি মার্কা নিয়ে ১৬৫৬টী ও মোহাম্মদ নাসিরুদ্দিন কলস মার্কা নিয়ে ১৬৪৬টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এই পদে মোহাম্মদ শামিম আকতার মিঠু তালগাছ মার্কা নিয়ে ১৫৩৩টি ও মোহাম্মদ আব্দুর রহমান জুয়েল মোরগ মার্কা নিয়ে ১০৪১টি ভোট পেয়েছেন।

কোষাধ্যক্ষ পদে মোহাম্মদ লাল দেওয়ান টিউবওয়েল মার্কা নিয়ে ২৬৪৪টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোহাম্মদ মোস্তাকিম আলী মেম্বার ফুটবল মার্কা নিয়ে ১০৯০টি ভোট পেয়েছেন। এছাড়াও আঠারোটি এলাকায় এলাকা প্রতিনিধি হিসেবে ১৮ কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

আম ভোলাহাট উপজেলার একমাত্র অর্থকরী ফসল। ভোলাহাট উপজেলাবাসীর আশা এই নবনির্বাচিত কমিটি ভোলাহাট উপজেলার আম ও আম চাষীদের উন্নয়ন এবং অধিকার রক্ষায় নব উদ্যোমে কাজ করবে এটুকু প্রত্যাশা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ