আরএমপিকে জনমুখি করা হবে : পুলিশ কমিশনার

আপডেট: আগস্ট ২১, ২০১৭, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন আরএমপি কমিশনার মাহাবুবর রহমান-সোনার দেশ

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) নতুন কমিশনার মাহাবুবর রহমান বলেছেন, আরএমপি আমরা কমিটমেন্ট নিয়ে কাজ করি। ৩০ লাখ শহিদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এ দেশে আমাদের অনেক কিছুই করার আছে। আমি মনে করিনা, আরএমপির সকল সদস্য শতভাগ পেশাদার। সব পেশাতেই কমবেশি বিচ্যুতি থাকে। এখানেও রয়েছে। আমি চেষ্টা করবো বিচ্যুতি সংশোধন আরএমপিকে জনমুখি করার জন্য।  গতকাল সোমবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ ঘোষণা দেন তিনি। রাজশাহী পুলিশ লাইন সম্মেলন কক্ষে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় নগর পুলিশের কার্যক্রম গতিশীল ও জনবান্ধব করতে গণমাধ্যম কর্মীদের সহায়তা চান নগর পুলিশ প্রধান।
তিনি বলেন, সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় রাজশাহীতে মাদকের বিস্তার রয়েছে। আমি মনে করি আমাদের বাহিনী একবারেই ধোয়া তুলশি পাতা নয়। প্রথমে আমি আমাদের লোকদের সঙ্গে কথা বলবো। মাদক ইস্যুতে কোন আপস করবো না। যারা আপস করবে তাদের পুলিশ বাহিনী থেকে বিতাড়িত করা হবে। মাদকের সঙ্গে আপসকারী অন্যরা যতই শক্তিশালী হোন তার বিরুদ্ধে কঠোর হবে আরএমপি।
এসময় নগরীতে চলমান মাদক পরিত্যাগে উদ্বুদ্ধকরণ এবং পরিত্যাগকারীদের পুনর্বাসন কার্যক্রম চালু রাখারও ঘোষণা দেন নয়া কমিশনার।
দিন শেষে নিজেকে সাধারণ মানুষ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা সহনীয় পর্যায়ে রেখে রাজশাহী শহর শান্তিপূর্ণ শহর হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছে নগর পুলিশ। কাজটি কঠিন হলেও তা নিষ্ঠার সঙ্গে করছে পুলিশ বাহিনী। সভায় জাতীয় ইস্যু হিসেবে রাজশাহীতেও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে সবধরনের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবারও ঘোষণা দেন নগর পুলিশ প্রধান। একইসঙ্গে নগরবাসীর নিরাপত্তায় পুলিশকে সহায়তার আহবান জানান তিনি।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, আরএমপির উপপুলিশ কমিশনার (সদর) তানভির হায়দার চৌধুরী, উপপুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) নাহিদুল ইসলাম, উপপুলিশ কমিশনার (পূর্ব) আমীর জাফর, আবু আহম্মেদ আল মামুন, নগর পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম প্রমুখ। মতবিনিময়কালে রাজশাহীতে কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা অংশ নেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ