আর্জেন্টিনা দল ঠিক করে দেন মেসি, বাউজার অস্বীকার

আপডেট: নভেম্বর ২২, ২০১৬, ১০:৪৪ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
কদিন আগে মাউরো ইকার্দিকে ঘিরে প্রশ্নটা উঠেছিল। ইতালিয়ান লিগে এত ভালো করছেন ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার। তবু আর্জেন্টিনা দলে অনেকটা ‘ফর্মহীন’ থাকা গঞ্জালো হিগুয়েইন বা সার্জিও আগুয়েরোদের ভিড়ে তাঁর জায়গা হয় না। এর কারণ হিসেবে অনেকের আঙুল যাচ্ছিল লিওনেল মেসির দিকে। সংবাদমাধ্যমের গুঞ্জন, আর্জেন্টাইন অধিনায়কের ‘অপছন্দ’ হওয়ার কারণেই নাকি সুযোগ পাচ্ছেন না ইকার্দি।
এর বাইরে ‘বন্ধু’ আগুয়েরোর সুযোগ পাওয়া, মিডফিল্ডে এভার বানেগার নিয়মিত সুযোগ না পাওয়ার পেছনেও অনেকে মেসির পছন্দ-অপছন্দের রেষ খুঁজে পাচ্ছিলেন। তা আসলেই কি ব্যাপারগুলো সত্যি? আসলেই কি আর্জেন্টিনা দলের একাদশ নির্বাচনে মেসির হাত থাকে? আলবিসেলেস্তে কোচ এদগার্দো বাউজা মোটেও সেটি মানেন না। সাংবাদিকদের সামনে বেশ জোর দিয়েই বললেন ৫৮ বছর বয়সী কোচ, ব্যাপারটি সর্বৈব মিথ্যা!
অধিনায়ক হিসেবে মাঠে দলকে অনুপ্রাণিত করার কাজটি মেসির। সামনে থেকে নেতৃত্বও দিচ্ছেন। তবে মাঠের বাইরে দল সাজানোর দায়িত্বটা পুরোটাই বাউজারই হাতে। মেসির ‘নির্বাচক’ হওয়ার ব্যাপারটি বরং মিডিয়ার বানানো আষাঢ়ে গল্প মনে হচ্ছে বাউজার কাছে, ‘অনেকেই বলছেন, মেসি নাকি আর্জেন্টিনা দলে নিজের বন্ধুদের নিয়ে নেন। ব্যাপারটা পুরো মিথ্যা। এটা আসলে মিডিয়ার আবিষ্কার।’
হয়তো বাউজার কথাই সত্যি। যেমন, ইকার্দির ব্যাপারটি নিয়েই কদিন আগে আর্জেন্টিনা কোচ বলেছেন, ইকার্দি দলে সুযোগ পাবেন, তবে তার জন্য তাঁকে আরও ভালো করতে হবে, পাশাপাশি হিগুয়েইন-আগুয়েরোদের ফর্মও হতে হবে আরও খারাপ।
এমনিতে আর্জেন্টিনা দলের সঙ্গে মিডিয়ার সম্পর্কটা এখন খারাপ। তিন বছরে বিশ্বকাপ ও দুটি কোপা আমেরিকা-টানা তিনটি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেও হারের কারণে খেলোয়াড়দের অনেক সমালোচনা করেছে সংবাদমাধ্যম। কখনো কখনো নাকি খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত বিষয়ও চলে এসেছে সামনে।
এই তো, কদিন আগে আর্জেন্টিনা খেলোয়াড়েরা দাবি করেন, বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে কলম্বিয়া ম্যাচের আগে স্ট্রাইকার এজেকিয়েল লাভেজ্জিকে নিয়ে অনুশীলনে মারিজুয়ানা সেবনের মিথ্যা প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় কয়েকটি আর্জেন্টাইন পত্রিকায়। যে কারণে কলম্বিয়া ম্যাচের পর পুরো দলকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে মেসি ঘোষণা দেন, আপাতত সংবাদমাধ্যম এড়িয়ে চলবে পুরো আর্জেন্টিনা দল।
এ নিয়েও কথা বলতে হলো বাউজাকে, ‘সর্বশেষ তিনটি টুর্নামেন্টেরই ফাইনালে ওঠা দলের ব্যর্থতা নিয়ে মানুষ যেভাবে কথা বলে, এটা কিছুটা তো উদ্বেগেরই।’ তবে খেলোয়াড়দের সংবাদমাধ্যম বর্জনের ব্যাপারটিও মিটমাট করিয়ে দিতে চান আর্জেন্টিনা কোচ, ‘আমার মনে হয় না খেলোয়াড়েরা যা করেছে, সেটি ঠিক হয়নি। সবকিছু আবার স্বাভাবিক করতে আমি সর্বোচ্চ চেষ্টাটাই করব। ওরা যেন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলে, সেটি (আর্জেন্টিনার) পরের ম্যাচের আগেই নিশ্চিত করতে চাই।’ সূত্র : মার্কা, গোলডটকম,প্রথম আলো অনলাইন।