আর্থিক সংকটে শ্রীলঙ্কা, সস্তায় তেল কিনতে রাশিয়ার পথে দ্বীপরাষ্ট্রের দুই মন্ত্রী

আপডেট: জুন ২৭, ২০২২, ৬:২০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


দেশে জ্বালানির ভাণ্ডার বাড়ন্ত। এমন অবস্থায় রাশিয়া থেকে কম দামে তেল কিনে অবস্থা সামাল দিতে চেষ্টা করছে শ্রীলঙ্কা। ভ্লাদিমির পুতিনের দেশের সঙ্গে তেল কেনার বিষয়ে আলোচনা করতে রাশিয়া রওনা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার দুই মন্ত্রী। ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধের আবহে রুশ তেলের দাম অনেকটাই কমেছে। সেই কারণেই সস্তায় তেল কিনতে তৎপর দ্বীপরাষ্ট্র।

ঋণের বোঝায় জর্জরিত শ্রীলঙ্কা। বিদেশি মুদ্রাও শেষ হয়ে গিয়েছে তাদের। তাই অন্য দেশ থেকে জ্বালানি কিনতে পারছে না দ্বীপরাষ্ট্র। যুদ্ধের আবহে আন্তর্জাতিক বাজারে বেড়েছে তেলের দাম। এদিকে জ্বালানি না থাকার ফলে ব্যাহত হচ্ছে বিদ্যুৎ উৎপাদন। পেট্রল কিনতে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতেই মৃত্যু হচ্ছে সাধারণ মানুষের। সব মিলিয়ে দেশের অভ্যন্তরীণ অবস্থা ভয়াবহ। শ্রীলঙ্কার বিদ্যুৎ মন্ত্রী কাঞ্চনা বিজেসেকারা জানিয়েছেন, দু’জন মন্ত্রী রাশিয়ায় যাচ্ছেন। তেল কেনা নিয়ে সেখানকার আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন তাঁরা।

কিছুদিন আগেই আর্থিক সমস্যা মোকাবিলা করতে নানা দেশের সাহায্য চেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। ভারত, চিন ও জাপানের থেকে সাহায্য চেয়ে একসঙ্গে বৈঠকে বসার প্রস্তাব দিয়েছিল দ্বীপরাষ্ট্র। উল্লেখ্য, মার্কিন প্রতিনিধি দলও শ্রীলঙ্কায় পৌঁছে গিয়েছে অবস্থা খতিয়ে দেখতে। এমন অবস্থায় রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক গড়তে চাইছে দ্বীপরাষ্ট্র।

তবে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে প্রতিবেশী দেশ ভারতের মতোই নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। কাজেই রাশিয়া থেকে তেল আমদানি করতে বাধা নেই তাদের।
কাঞ্চনা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই রাশিয়ায় নিযুক্ত শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রদূত তেল কেনা প্রসঙ্গে আলোচনা শুরু করে দিয়েছেন।

বিদ্যুৎমন্ত্রীর মতে, সরাসরিভাবে রাশিয়ার থেকে তেল কিনলেই সুবিধা হবে। সেই সঙ্গে দেশের মানুষকে বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে সরে আসতে অনুরোধ করেছেন তিনি। আরও জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষ যেন পেট্রল পাম্পে ভিড় না করেন। কারণ তাঁদের প্রয়োজন মতো জ্বালানির জোগান দেওয়া যাচ্ছে না।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ