আ’লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই শেখ হাসিনার ওপর গ্রেনেড হামলা : লিটন

আপডেট: আগস্ট ২২, ২০১৭, ১:৩৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন নগর আ’লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ডাবলু মরকারসহ নেতৃবৃন্দ-সোনার দেশ

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আ’লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৃত্যুর ভয় পাই না। তিনি মহান আল্লাহ ছাড়া কারো কাছে মাথা নত করেন না। শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ও আ’লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে ২০০৪ সালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আ’লীগ কার্যালয়ের সামনে গ্রেনেড হামলা করা হয়েছিল। এ নৃশংস গ্রেনেড হামলায় আইভী রহমানসহ ২৪ জন নিহত হয়। গতকাল সোমবার বিকেলে নগর আ’লীগের উদ্যোগে সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এ হামলার বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ এবং বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সাবেক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদেশ-নির্দেশে স্বাধীনতার যুদ্ধ হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরও অমানুষের মতো আচরণ করেছিল স্বাধীনতাবিরোধীরা। যখনই মানুষ নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়েছে তখনই দেশের মানুষ কিছু না কিছু পেয়েছে। নৌকা মানেই উন্নয়নের প্রতীক। প্রধানমন্ত্রীর বুদ্ধি ও তীক্ষ্মতায় দেশের অর্থ দিয়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ চলছে। আ’লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে শিক্ষা, চিকিৎসা ও খাদ্যে কোন ঘাটতি হয় না। সম্প্রতি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের না খেয়ে থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন, নগর আ’লীগের সহসভাপতি শাহীন আকতার রেনী, মীর ইকবাল, সৈয়দ শাহাদত হোসেন, উপপ্রচার সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহমেদ লিমন, ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান কামরু, নগর শ্রমিক লীগের সভাপতি বদরুজ্জামান খায়ের, ১২ নম্বর ওয়ার্ড আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক বিপন্ন কুমার সরকার, ৯ নম্বর ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি আশরাফ উদ্দিন খানসহ মহানগর আ’লীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, থানা, ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।
খায়রুজ্জামান লিটন সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূলের প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, আমরা কোনো সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ চাই না। দেশে কোনো সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ থাকবে না। জঙ্গি হামলার পেছনে বাংলাদেশের স্বাধীনতাবিরোধী দেশি-বিদেশি শক্তি রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
আসন্ন সিটি নির্বাচনে নগরবাসীর নিকট খায়রুজ্জামান লিটন আহ্বান জানিয়ে বলেন, রাজশাহীর উন্নয়ন চাইলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করতে হবে। নগরবাসী একবার ভুল করেছেন মেয়র নির্বাচনে, আশাকরি এবার আর ভুল করবেন না। মেয়র হিসেবে যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করবেন।
বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে লিটন বলেন, যেখানে জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়েছে সেখানে ষড়যন্ত্রের গভীরতা উপলব্ধি করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সবদিক থেকে বাংলাদেশ যখন সুস্থভাবে চলছে, তখনও দেখা যাচ্ছে- দেশের ভেতরের কিছু আর কিছু বিদেশি শক্তি, যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় বিরোধিতা করেছে, নানা ধরনের চক্রান্ত করেছে, যারা আমাদের সম্পদ অন্যের কাছে বেচতে চেয়েছে, তাদের মধ্যে বিএনপি নেত্রী খালেদা ও তারেক জিয়া লন্ডনে বসে নানা ধরনের চক্রান্ত এখনো চালাচ্ছে । তাদের এ স্বপ্ন কোনদিন পূরণ হবে না। অনুষ্ঠানের শেষে একুশে আগস্টে নিহতদের স্মরণে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
নগর যুবলীগ : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে রাজশাহী মহানগর যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিলে এবং সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর যুবলীগ সহসভাপতি আশরাফুল আলম, মোখলেসুর রহমান মিলন, ড. আব্দুল মান্নান, আমিনুর রহমান খান রুবেল, যুগ্মসম্পাদক তৌহিদুল হক সুমন, যুবনেতা মো মাসুদ রানা শাহীন, রবিউল ইসলাম রুবেল, রায়হানুর রহমান রয়েল, মশিউর রহমান রনি, শরিফুল ইসলাম পাপ্পু,মোঃ ইউসুফ আলি, মো. দুরুল হুদা, ইতু প্রমুখ। মিছিলটি নগরীর আলুপট্রি মোড় হতে শুরু করে মহানগর আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সভায় যোগদান করেন।
নগর ছাত্রলীগ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বিএনপি-জামায়াত চক্রের গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতৃবৃন্দ নিহত হন। গ্রেনেড হামলা দিবস প্রতিবাদে ছাত্রলীগ, রাজশাহী মহানগরের সভাপতি রকি কুমার ঘোষ ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান রাজিব এর নেতৃত্বে রাজশাহী কলেজের মহারনী হেমন্ত কুমারী হিন্দু ছাত্রবাস থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ যোগদান করেন। এ সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতিবৃন্দ, যুগ্ম সম্পাদকবৃন্দ, সাংগঠনিক সম্পাদকবৃন্দ, সম্পাদকমণ্ডলি, সহ-সম্পাদকবৃন্দ, সদস্যবৃন্দ ও এর অন্তর্ভূক্ত বিভিন্ন ইউনিটের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ সকল নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ