আ’লীগ নেতা বেন্টুর গাড়িতে গুলি

আপডেট: জানুয়ারি ৫, ২০১৭, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর গাড়িতে গুলি চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বুধবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নগরীর গণপাড়া মোড়ে দুর্বৃত্তদের গুলিতে তার গাড়ির সামনের কাঁচ ফুটো হয়ে যায়। তবে তিনি ওই সময় গাড়িতে ছিলেন না। তবে তার গাড়িতে গুলি চালানো হয়েছে কী না- তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি বলে জানান বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহাদত হোসেন খান।
তিনি বলেন, ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের মঞ্চের পেছনে দুইটি গাড়ি ছিল। এর মধ্যে একটি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের এবং অপরটি নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর। অনুষ্ঠান থেকে বের হয়ে খায়রুজ্জামান লিটন গাড়িতে উঠে রওনা দেওয়ার পর পরই আজিজুল আলম বেন্টুর গাড়িতে হামলা হয়। ওই গাড়িটিও বের করার জন্য ড্রাইভার গাড়িতে উঠেন। আর গাড়ির পাশেই তিনি উপস্থিত ছিলেন বলে জানান ওসি শাহাদত হোসেন খান।
ওসি বলেন, একটা শব্দ হওয়ার পর তাকিয়ে দেখি মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর গাড়ির সামনের কাঁচ ভেঙে গেছে। গাড়ির কাঁচে আঘাত গুলির মত হলেও সেখানে গুলি বা অন্যকিছু পাওয়া যায়নি। পরে ওই এলাকায় তল্লাশি চালানো হয়। আশাপাশে নির্মাণাধীন ভবন রয়েছে। সেগুলো থেকে এ হামলা হয়েছে কিনা তা গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি শাহাদত।
গাড়ির ড্রাইভার সাগর বলেন, অনুষ্ঠান থেকে চলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তিনি। ভাই (বেন্টু) গাড়িতে আসার আগ মুহূর্তে গাড়িতে গুলি করা হয়।
আজিজুল আলম বেন্টু বলেন, তিনি যে সিটে বসেন সে বরাবরই গুলি চালানো হয়েছে। তাকে উদ্দেশ্য করে এ হামলা চালানো হয়। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। দ্রুত এ হামলাকারীকে খুঁজে বের কারার জন্য পুলিশের প্রতি আহবান জানান তিনি।
মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, গাইবান্ধায় সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে গুলি করে হত্যা ও আজিজুল আলম বেন্টুর গাড়িতে গুলি চালানো একই সুত্রে গাথা। যারা ৫ জানুয়ারি দেশে সন্ত্রাসী কর্মকা- চালিয়ে দেশ অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে তারাই পরিকল্পতিভাবে এ হামলা চালিয়েছে। পুলিশ দ্রুত এই হামলাকারীদের খুঁজে বের করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন ডাবলু সরকার।