‘আলেপ্পোর দখলকৃত অংশের অর্ধেক হারিয়েছে বিদ্রোহীরা’

আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০১৬, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত পূর্বাংশের ৫০ শতাংশের নিয়ন্ত্রণ সরকারি বাহিনীর হাতে চলে এসেছে বলে দাবি করেছে দেশটির সামরিক বাহিনীর এক মুখপাত্র।
এক সপ্তাহের মধ্যে পুরো আলেপ্পো সিরীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন জেনারেল সামির সুলাইমান নামের ওই মুখপাত্র, জানিয়েছে বিবিসি।
সেনাবাহিনী পূর্ব আলেপ্পোর তারিক আল বাব এলাকাটি বিদ্রোহীদের দখল থেকে পুনরুদ্ধার করার একদিন পর বিবিসিকে একথা বলেন জেনারেল সুলাইমান।
গত তিন সপ্তাহ ধরে বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত পূর্ব আলেপ্পো অবরোধ করে রেখেছে সিরীয় সরকারি বাহিনী ও এর মিত্র বেসামরিক বাহিনীগুলো।
শনিবার পাওয়া খবরগুলোর ভিত্তিতে বিবিসির ধারণা, আলেপ্পোর বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত এলাকার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ পুনরুদ্ধার করেছে সরকারি বাহিনী। তখনও পর্যন্ত আলেপ্পোর বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত অবরুদ্ধ অংশে প্রায় আড়াই লাখ মানুষ আটকা পড়ে ছিলেন। এই এলাকাটি লক্ষ্য করে সিরীয় যুদ্ধবিমানগুলো ও গোলান্দাজ বাহিনী ব্যাপক বোমা ও গোলাবর্ষণ করছে। পুরো আলেপ্পোজুড়ে বোমা ও গোলার বিকট শব্দ শোনা যাচ্ছে। জেনারেল সুলাইমান জানিয়েছেন, সেনাবাহিনী ও মিত্র বাহিনীগুলো দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে, অবশিষ্ট অংশগুলো আগামী কয়েকদিনের মধ্েয পুনরুদ্ধারের আশা করছে তারা।
তীব্র হামলার মুখে বিদ্রোহী যোদ্ধারা পিছু হটে দক্ষিণের ঘনবসতি এলাকাগুলোর দিকে সরে গিয়ে জোটবদ্ধ হওয়ার চেষ্টা করছে বলে জানা গেছে।  পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, বিদ্রোহীদের দখলে চলে যাওয়ার সাড়ে চার বছর পর তারিক আল বাব এলাকাটি পুনরুদ্ধার করেছে সরকারি বাহিনী। এ লড়াইয়ে উভয়পক্ষের ২০ থেকে ১০০ জন যোদ্ধা নিহত হয়েছেন।
পূর্ব আলেপ্পোয় সরকারি বাহিনীর অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ৩০০ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে গোষ্ঠীটি। তীব্র লড়াই চলাকালীন তারিক আল বাবের কয়েক হাজার বাসিন্দা আশপাশের এলাকাগুলোতে পালিয়ে যায়।
পূর্ব আলেপ্পোর প্রায় লাখো বাসিন্দা ঘরবাড়ি হারিয়ে বাস্তুচ্যুত হয়েছে পড়েছে। জাতিসংঘ জানিয়েছে, পূর্ব আলেপ্েেপার পরিস্থিতি এখন এতটাই শোচনীয় যে কোনো অ্যানেস্থেশিয়া ছাড়াই অস্ত্রোপচার করতে হচ্ছে।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ