আলেপ্পোয় অস্ত্রবিরতির জাতিসংঘ প্রস্তাবে রাশিয়া-চিনের ভেটো

আপডেট: December 7, 2016, 12:03 am

সোনার দেশ ডেস্ক


সিরিয়ার আলেপ্পোয় ৭ দিনের অস্ত্রবিরতির জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে মিশর, নিউজিল্যান্ড ও স্পেনের আনা প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে এ পরিষদের দুই স্থায়ী সদস্য রাশিয়া ও চিন।
রাশিয়া যুক্তি দেখিয়ে বলেছে, অস্ত্রবিরতির সুযোগে আলেপ্পোর বিদ্রোহীরা পুনরায় সংগঠিত হওয়ার সুযোগ পাবে। তাছাড়া, সিরিয়া নিয়ে ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যে আলোচনার জন্যও সময় দরকার।
২০১১ সালে সিরিয়ায় সংঘাত শুরুর পর থেকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবে এ নিয়ে ছয়বার ভেটো দিল রাশিয়া। আর চীন ভেটো দিল পঞ্চমবার। রাশিয়া ও চিনের ভেটোর পাশাপাশি ভেনেজুয়েলাও সিরিয়ায় ৭ দিনের অস্ত্রবিরতির নতুন খসড়া প্রস্তাবের  বিপক্ষে ভোট দিয়েছে। তবে অ্যাঙ্গোলা ভোটদানে বিরত থাকে। অন্যদিকে, ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদের ১১ সদস্য প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে।
রাশিয়ার জাতিসংঘ দূত ভিতলি চুরকিন অস্ত্রবিরতির প্রস্তাব সম্পর্কে বলেছেন, “এ ধরনের বিরতিকে যোদ্ধারা তাদের অবস্থান শক্তিশালী করার কাজে লাগায়। আর এতে করে জনগণের দুর্দশা-দুর্ভোগই কেবল বাড়বে।”
জাতিসংঘ বলেছে, আলেপ্পোর বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে ২ লাখেরও বেশি মানুষ আটকা পড়ে থাকতে পারে, যারা মারাত্মক খাদ্য ও ত্রাণ সংকটে ভুগছে।
আলেপ্পোয় বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা এলাকা পুনর্দখলে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়া বাহিনী। রাশিয়া সোমবার বলেছে, আলেপ্পো থেকে বিরোধীদের সরিয়ে দেয়া নিয়ে তারা ওয়াশিংটনের সঙ্গে আলোচনা করবে। আর এ আলোচনার জন্য সময় দিতেই নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব পিছিয়ে দেওয়া উচিত বলে যুক্তি দেন চুরকিন।
ওদিকে, চিনও আলোচনায় সময় দেয়ার কথা বলে জাতিসংঘ প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে। জাতিসংঘে চিনের রাষ্ট্রদূত লিউ জিয়েই বলেছেন, আরও আলোচনার মধ্য দিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে মতৈক্য না হওয়া পর্যন্ত আলেপ্পোয় অস্ত্রবিরতির খসড়া প্রস্তাবে ভোটাভুটি পিছিয়ে দেয়া উচিত।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ