আশুলিয়ার আস্তানার ৪ জঙ্গি রিমান্ডে

আপডেট: জুলাই ১৮, ২০১৭, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ঢাকার আশুলিয়ার জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করা চার জেএমবি সদস্যকে আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক উদ্ধারের আগের একটি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের পুলিশ হেফাজতের অনুমতি দিয়েছে আদালত।
আড়াই মাস আগের সাভার থানার ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সোমবার র‌্যাব-৪ এর নবীনগর ক্যাম্পের জ্যেষ্ঠ এএসপি উনু মং তাদের ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ১০ দিনের হেফাজতে নেয়া আবেদন করেন।
আবেদন শুনে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ফাইরুজ তাসনীম চারজনকে চার দিনের হেফাজতে নেওয়ার আদেশ দেন বলে প্রসিকিউশন পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান।
এরা হলেন- মোজাম্মেল হক, রাশেদুন্নবী, ইরফানুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেন; সবাই জেএমবির ‘সারোয়ার-তামিম গ্রুপের’ সদস্য বলে র‌্যাবের ভাষ্য।
বিকাল ৪টা ২০ মিনিটে রিমান্ডের জন্য আসামিদের কাঠগড়ায় তোলা হয়; তাদের পক্ষে কোনো আইনজীবী দাঁড়াননি।
বিচারক আসামিদের উদ্দেশ্যে বলেন, “এই মামলার রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে আপনাদের কিছু বলার আছে? বলার থাকলে বলতে পারেন।” তবে আসামিদের কেউ কোনো কথা বলেননি।
রোববার প্রথম প্রহরে আশুলিয়ার নয়ারহাটের চৌরাবালি এলাকায় ইব্রাহীম নামে এক ব্যক্তির মালিকানাধীন ওই বাড়ি ঘিরে ফেলে র‌্যাব-৪ এর একটি দল।
১১ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থেকে চার জঙ্গি ধরা দেওয়ার পর সেখানে তল্লাশি চালিয়ে বিস্ফোরক, আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলির খোসা উদ্ধারের কথা জানায় র‌্যাব।
অভিযানের সময় দফায় দফায় গোলাগুলি চলে এবং বাড়ির ভেতর থেকে বোমাও ছোড়া হয় বলে র‌্যাব জানায়। এই ঘটনায় আশুলিয়া থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে পুলিশ কর্মকর্তা জানান।
তবে তাদেরকে গত ২৭ এপ্রিল রাতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে একটি বাসে তল্লাশি চালিয়ে পিস্তল, গুলি ও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ তিন জনকে গ্রেপ্তার করার ঘটনায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ