আড়ানী ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হকের গোল্ডেন অ্যাওয়ার্ড গ্রহণে সম্মতি

আপডেট: অক্টোবর ২০, ২০২১, ৭:০৯ অপরাহ্ণ


বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি :


রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড গ্রহণের জন্য সম্মতি প্রদান করেছেন। তিনি করোনা মহামারিতে জনসচেতা ও সমাজ সেবায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড ২০২১ প্রদানের জন্য মনোনীত করেছেন। তাকে আগামী ২৩ অক্টোবর পুরান পল্টন ইকনোমিক রিপোটার্স ফোরাম মিলনায়নে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন আনুষ্টানিকভাবে এই এ্যাওয়ার্ড প্রদান করবেন।

অনুষ্টানে প্রধান অতিথি থাকবেন বিচারপতি ফয়সাল মাহমুদ ফরাজী, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রফেসার ড. কামাল উদ্দিন আহম্মেদ। বিশেষ অতিথি থাকবেন পীরজাদা শহীদুল হারুন, নুরুল ইসলাম বিপিএম, ব্যারিষ্টার জাকির হোসেন। সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মুহাম্মদ আতাউল্লাহ খান।
এ বিষয়ে আড়ানী ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক বলেন, আমার অজান্তে বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শাহ আল চুন্নু ও মহাসচিব এম এইচ আরমান চৌধুরী স্বাক্ষরিত একটি প্যাডে চিঠি প্রেরণ করেছেন। চিঠিতে উল্লেখ্য করা হয়েছে করোনা মহামারিতে জনসচেতা ও সমাজ সেবায় আমি বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। তাদের এই আন্তরিকতায় আমিও সম্মতি দিয়েছি। আমি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি’র দিকনির্দেশনায় বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি করে আসছি। বাস্তবে করোনা মহামারিতে আমি যে, পরিমান সাধারণ মানুষকে সহযোগিতা করেছি, তার প্রমান শুধু বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন না, সাধারণ জনগণ প্রমান দিবে তাদের জন্য আমি ওই সময় কি করেছি।

এনামুল আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি’র সহযোগিতায় চেয়ারম্যান পদে মনোনীত হয়ে আড়ানী ইউনিয়নের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। আড়ানী ইউনিয়নকে আধুনিক এবং মডেল ইউনিয়ন হিসেবে মাদক-সন্ত্রাসমুক্ত করতে চাই। এছাড়াও বর্তমান সমাজের বাল্য বিয়ে একটি সামাজিক ব্যাধি হিসেবে পরিনত হয়েছে। এই বাল্য বিয়ের প্রবনতা রোধে বিশেষ ভূমিকা রাখতে চাই। সেই সাথে অবৈধ কর্মকান্ড নির্মূল করে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আসন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে চাই। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যদি তৃণমূলের জনপ্রিয়তার ভিত্তিতে মনোনয়ন দেয়া হয়, তাহলে অবশ্যই আমিই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাব বলে বিশ্বাস করি।