ইংল্যান্ড-ভয় তাহলে কাটছে!

আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০১৬, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
ইংল্যান্ডে বহুল প্রচারিত দৈনিক ‘দ্য সান’ এ মাসের শুরুতে এক প্রতিবেদনে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশের সফরকে ’বিতর্কিত’ বলে আখ্যায়িত করেছিল। অথচ ইংল্যান্ড তখন বাংলাদেশে। প্রতিবেদনে এটিও ছিল যে ইংল্যান্ডের জন্য দেওয়া হয়েছে নজিরবিহীন নিরাপত্তা। ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ জেতা একটি ম্যাচ হাতছাড়া করে ২-১ ব্যবধানে সিরিজে হারের পর গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টে প্রথম দিন শেষে ইংল্যান্ডের অবস্থান যেন এটিই প্রমাণ করছে টেস্টেও খুব বেশি ব্যবধান নেই দুই দলের।
প্রথম দিনের খেলা শেষে প্রায় সব ইংলিশ পত্রিকার অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত হয়েছে অভিষিক্ত মেহেদী হাসান মিরাজের পাঁচ উইকেট নেয়ার সাফল্য। একটিতে লেখা হয়েছে ‘লড়ার মতো সংগ্রহ হয়েছে, তিন শ’র কাছাকাছি গেলে যথেষ্ট’। অন্য একটিতে লেখা হয়েছে ‘বিপদ কিন্তু  কাটেনি ইংল্যান্ডের’।  বাংলাদেশ যে ৭ উইকেটের পতন ঘটিয়েছে এবং ইংল্যান্ড যে দাপট দেখাতে পারেনি তা কিন্তু আড়ালেই রয়ে গেছে। মেইল অনলাইনের জেমস ডাটন যেমন লিখেছেন, ‘ইংল্যান্ড কিন্তু সম্মানজনক সংগ্রহে দিন শেষ করতে পারেনি’। মিরাজ সম্পর্কে তিনি লিখেছেন, ‘১৮ বছরের স্পিনার আজ ৩৩ ওভার বল করেছেন, কাল এত ওভার বল তার করা লাগবে না।’
বাংলাদেশ সকালে এক পর্যায়ে ২১ রানে তিন উইকেটে তুলে নিয়েছিল ইংল্যান্ডের। সেখান থেকে মঈন আলীর পাঁচবার রিভিউ ভাগ্যে ৬৮ ও জনি বেয়ারস্টোর ৫২ রানে ভর করে বিপদ কাটায় ইংল্যান্ড।  ইংলিশ প্রচার মাধ্যম এতে খুঁজে পেয়েছে তাদের ভারত সফরের অনুপ্রেরণা। কারণ ভারত রবিচন্দ্রন অশ্বিনের মাধ্যমে নাকি পরবর্তী সফরে এ রকম হুমকিই ইংল্যান্ডকে দেবে।
একটা নাক উঁচু ভাব নিয়েই টেস্ট খেলতে নামে ইংল্যান্ড। বাংলাদেশ এ অঙ্গনে ‘আমাদের চেয়ে অনেক পিছিয়ে’ এমনটিই তারা প্রকাশ করে তাদের ভাবভঙ্গিতে। বলাই বাহুল্য প্রথম দিন বেশি রান করতে না পারলে বাংলাদেশ ইংল্যান্ড থেকে প্রথম ইনিংসে খুব বেশি পিছিয়ে থাকবে না। সে ক্ষেত্রে দুই-তিনদিনের পুরোনো পিচে যদি সাকিব- তাইজুল-মিরাজরা দিতে পারেন মরণ কামড়, তাহলে বদলে যেতে পারে চিত্র। অন্তত প্রথম দিন শেষে ইংল্যান্ডকে চাপে রেখে ভালো সূচনাই করেছে টাইগাররা।-বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ