ইতালির নেপলস শহরে ১৬০ বারের বেশি ভূমিকম্প

আপডেট: মে ২২, ২০২৪, ১:০১ অপরাহ্ণ

ছবি সংগৃহীত

সোনার দেশ ডেস্ক :


কয়েক ঘণ্টায় দেড় শতাধিক ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে ইতালির নেপলস শহর। ইতালির দক্ষিণাঞ্চলীয় ওই শহরের আশেপাশের এলাকায় ভূমিকম্পের পর বাড়ি-ঘর থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এছাড়া বন্ধ করে দেয়া হয়েছে অনেক স্কুল। খবর বিবিসির।

স্থানীয় সময় সোমবার (২০ মে) সন্ধ্যা থেকে রাতভর দফায় দফায় ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। সেখানে ১৬০ বারের বেশি ভূমিকম্প আঘাত হানার খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্পটি ছিল ৪ দশমিক ৪ মাত্রার। দেশটির পোজুলি শহরের কাছে স্থানীয় সময় রাত ৮টার দিকে এই ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

ইতালির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব জিওফিজিক্স অ্যান্ড ভলকানোলজি জানায়, ৪০ বছরের মধ্যে এটাই ছিল ওই অঞ্চলের সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প।
নেপলস শহরের মেয়র ম্যানফ্রেদি জানান, দফায় দফায় ভূমিকম্পের কারণে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, কর্মকর্তারা এ বিষয়ে কাজ করছেন।

ভূমিকম্পের পর পোজুলিতে কয়েকশ তাঁবু টানানো হয়েছে। কিছু বাসিন্দা রাতের বেশিরভাগ সময় রাস্তায়ই অবস্থান করছিলেন। অনেকেই আবার তাদের আত্মীয়দের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গত কয়েক মাসে কমমাত্রার কয়েকটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। ফলে ভয়ে-আতঙ্কে অনেক পরিবারই এখন ওই এলাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা ভাবছেন।

নেপলসের এক বাসিন্দা বলছেন, তারা কখনো এতো শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভব করেননি। এক বাসিন্দা ইল মাত্তিনো পত্রিকাকে বলেছেন, এবারের ভূমিকম্প বেশ শক্তিশালী ছিল। মনে হচ্ছিল যেন এই কম্পন শেষ হবে না।

তবে দফায় দফায় ভূমিকম্প আঘাত হানলেও বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। পরিদর্শনের জন্য নেপলসের কিছু স্কুল মঙ্গলবার (২১ মে) বন্ধ রাখা হয় এবং সতর্কতার জন্য পোজুলিতে একটি নারী কারাগার থেকে বন্দিদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version