ইতালির মধ্যাঞ্চলে শক্তিশালী জোড়া ভূমিকম্প

আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০১৬, ১০:৫৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
ইতালির মধ্যাঞ্চলে বুধবার শক্তিশালী দুটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এতে গোটা এলাকা কেঁপে ওঠে।
প্রাথমিক খবরে জানা গেছে, বুধবার ইতালির মধ্যাঞ্চলের এই ভূমিকম্পে অনেকগুলো ভবন ধসে পড়ে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়। একই এলাকায় প্রলয়ঙ্করী ভূমিকম্পে প্রায় ৩শ’ লোক প্রাণ হারানোর দুই মাস পর সর্বশেষ ভূমিকম্পের এ ঘটনা ঘটল।
রিখটার স্কেলে প্রথম ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫.৫। এসময় আতঙ্কিত মানুষ তাদের বাড়িঘর থেকে দৌড়ে বেরিয়ে আসে। দুই ঘণ্টা পর আরো শক্তিশালী দ্বিতীয় ভূমিকম্প আঘাত হানে। রিখটার স্ক্রেলে এর তীব্রতা ছিল ৬.১।
উদ্ধারকর্মীরা রাতভর বৃষ্টির মধ্যে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়েছেন। বৃষ্টিপাতের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বেশ কয়েকটি এলাকায় প্রবেশ করতে তাদেরকে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে।
পার্বত্য শহর উসিতার মেয়র ম্যাক্রো রিনাল্ডি টেলিফোনে স্কাই ইতালি টেলিভিশনকে বলেন, ‘বহু বাড়িঘর ধসে পড়েছে। আমারদের শহর ধ্বংস হয়ে গেছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘দ্বিতীয় ভূমিকম্পটি ছিল দীর্ঘ ও ভয়ঙ্কর।’
মেয়র বলেন, ‘আমি আমার জীবনে অনেক ভূমিকম্প দেখেছি। কিন্তু এটা ছিল আমার দেখা সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প। সৌভাগ্যক্রমে প্রথম ভূমিকম্পের পর বাসিন্দাদের সকলেই বাড়িঘর ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসে। আমার মনে হয় না কেউ মারাত্মক আহত হয়েছে।’
বেসামরিক নিরাপত্তা প্রধান ফ্যাব্রিজিও কার্সিও রাতে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, কয়েকজন সামান্য আহত হয়েছে বা মানসিকভাবে ধাক্কা খেয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। ইতালির রাজধানী রোমেও ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে।
এতে ভীত সন্ত্রস্ত মানুষ বাড়িঘর থেকে দৌড়ে রাস্তায় নেমে আসে। দ্বিতীয় ভূমিকম্পটি রাজধানীর দক্ষিণে অবস্থিত নেপলস ও উত্তর প্রান্তে অনুভূত হয়।
মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানায়, প্রথম ভূমিকম্পটির তীব্রতা ছিল ৫.৫। গ্রিনিচ মান সময় ১৭১০ টায় এটি আঘাত হানে। দুই ঘন্টা পর দ্বিতীয় ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।
উভয় ক্ষেত্রেই ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল মধ্যাঞ্চলীয় মার্শে অঞ্চলের ভিসো গ্রামের কাছে।
আগস্ট মাসে ইতালির পার্বত্য শহর আমাত্রিসেতে ৬ ও ৬.২ মাত্রার দুটি ভূমিকম্পে ২৯৭ জনের প্রাণহানি ও কয়েকশ লোক আহত হয়। এতে শহরটির বাড়িঘর মাটির সঙ্গে মিশে যায়।- বাসস