ইনি সিঙ্গল থাকতেই পছন্দ করেন, পরিচয় পেলে কিন্তু চমকে উঠবেন

আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০১৭, ১১:৫৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



২০০৫। মুক্তি পেল ‘কলিযুগ’। বলিউড কুণাল খেমুকে নিয়ে মাতামাতি করল বটে। তবে সে সময় ‘জিয়া ধড়ক ধড়ক যায়েৃ’ গানটাও মাতিয়ে রেখেছিল সিনে দুনিয়া।
কাট টু। ২০১৭। বছর বারো পর ফের এই গান গাইছেন সকলে। না! শুধু বলিউডে আটকে নেই। গোটা বিশ্বই যেন এই লিরিকস্ আওড়াচ্ছেন। সৌজন্যে এই মেয়ে। হ্যাঁ, হ্যাঁ। যার ছবি দেখছেন, সেই। নাম জিয়া জিয়া। এর কীর্তি শুনলে আপনি অবাক হতে বাধ্য।
সম্প্রতি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিল এই মেয়ে। কেন? তা পরে বলছি। প্রথমে সেই সাংবাদিক সম্মেলনের কিছু প্রশ্ন-উত্তরের নমুনা পেশ করা যাক। জানতে চাওয়া হয়, বয়ফ্রেন্ড আছে? জিয়ার সটান জবাব, ‘আমি সিঙ্গল থাকতেই বেশি পছন্দ করি।’ এর পর প্রশ্ন করার আগেই এক সাংবাদিককে সে সরল ভাবে বলে, ‘আপনি তো বেশ হ্যান্ডসাম’!
সাদা, ট্র্যাডিশনাল চাইনিজ পোশাক পরা এ হেন জিয়া আসলে কিন্তু মানুষ নয়। তাহলে? অবাক হচ্ছেন নিশ্চয়ই। হ্যাঁ, এখানেই চমক। জিয়া রোবট মানুষ। বলা ভাল চিনের প্রথম রোবট মানুষ।
‘ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অফ চায়না’র একদন ইঞ্জিনিয়ার গত বছর জিয়াকে তৈরি করেছেন। অর্থাৎ জিয়া জিয়ার জন্ম ২০১৬-তে। এ বছর প্রকাশ্যে এল সে। দুনিয়া দেখল তাকে। গত সোমবার চিনে এক অনুষ্ঠানে এই রোবট মানুষকে নিয়ে হাজির হন ওই ইঞ্জিনিয়ারদের টিম লিডার শেন জিয়াওপিং। সেখানে চেন যেন ঠিক এক গর্বিত বাবা। তাঁর কথায়, ‘‘জিয়ার মতো রোবট চিনের রেস্তোরাঁ, নার্সিং হোম, হাসপাতালে কাজ করতে পারবে। বাড়ির নানা কাজেও এদের সাহায্য পাওয়া যাবে। আগামী পাঁচ-দশ বছরের মধ্যে চিনে রোবটের মধ্যে আরও নানা রকম অ্যাপ্লিকেশন আসতে চলেছে।’’
শোনা যাচ্ছে, হ্যানসন রোবোটিক্স নামে এক চিনা কোম্পানি ‘প্রফেসর আইনস্টাইন’ নামে এক রোবট বাজারে আনতে চলেছে যে মুখে নানারকম এক্সপ্রেশনও দিতে পারবে। বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারবে। এমনকী মুখে মুখে কষে ফেলতে পারবে শক্ত অঙ্কও। না! জিয়া জিয়া এখনও সেই পর্যায়ে পৌঁছয়নি বটে। তবে তার ভবিষ্যত নিয়েও যথেষ্ট আশাবাদী শেন।- আনন্দবাজার পত্রিকা