ইসলামী গোষ্ঠী পিএফআই ভারতে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২, ৩:৫১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


ইসলামী গোষ্ঠী পপুলার ফ্রন্ট অব ইন্ডিয়া (পিএফআই) ও সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোকে ‘বেআইনি সংঘ’ ঘোষণা করে তাদেরকে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ভারত।

বুধবার থেকেই এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে বলেও জানিয়েছে তারা।
চলতি মাসের শুরুর দিকেই ভারতীয় কর্তৃপক্ষ গোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে সহিংসতা ও দেশবিরোধী কর্মকাণ্ড করার অভিযোগ আনে; মঙ্গলবারও তাদের ডজনের বেশি নেতাকর্মীকে আটক করা হয়।

তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পিএফআইয়ের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার খড়্গ নেমে এল বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
ইসলামী গোষ্ঠীটি তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে এবং নেতাকর্মীদের আটক ও তাদের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযানের প্রতিবাদে সড়কে বিক্ষোভও দেখিয়েছে।

বুধবার ভারতের সরকারের এক ঘোষণায় বলা হয়, ‘ষড়যন্ত্রের’ অংশ হিসেবেই পিএফআই ভারত ও এর বাইরে থেকে অর্থ সংগ্রহ করে সেগুলো একাধিক ব্যাংক হিসাবে লেনদেন করে বৈধ দেখায়। পরে এই অর্থ ‘দেশের ভেতর নানান অপরাধ, বেআইনি ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম’ পরিচালনায় ব্যবহৃত হয়।

এর আগে মঙ্গলবার ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য উত্তর প্রদেশের পুলিশ ‘সহিংস কর্মকাণ্ড এবং ভারতজুড়ে পিএফআইয়ের ক্রমবর্ধমান দেশবিরোধী তৎপরতার’ দায়ে গোষ্ঠীটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৫৭ জনকে আটক করার কথা জানিয়েছিল।

পিএফআইয়ের পাশাপাশি অল ইন্ডিয়া ইমামস্ কাউন্সিল, ক্যাম্পাস ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া, রেহাব ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন, ন্যাশনাল উইমেনস ফ্রন্ট, জুনিয়র ফ্রন্ট, ন্যাশনাল কনফারেন্স অফ হিউম্যান রাইটস অর্গানাইজেশন, এমপাওয়ার ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন এবং রেহাব ফাউন্ডেশন (কেরালা)-কেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ