ঈশ্বরদীতে ট্রাক চাপায় মারা গেলেন চাটমোহরের সেই ক্লিনিক মালিক বাবলু

আপডেট: নভেম্বর ১৯, ২০১৯, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি


পলিয়ে থাকা অবস্থায় ট্রাক চাপায় মারা গেলেন পাবনার চাটমোহর ‘ইসলামিক হাসপাতাল’ নামের সেই ক্লিনিক মালিক আমির হোসেন বাবলু (৫৫)। গত রোববার গভীর রাতে ঈশ্বরদীর বিমানবন্দর সড়কের পশ্চিমটেংরি এলাকা দিয়ে রিকশায় যাওয়ার সময় ট্রাক চাপায় ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তিনি চাটমোহর পৌর এলাকার আফ্রাতপাড়া মহল্লার তোফাজ্জল সরদারের ছেলে। তার ক্লিনিকে প্রসূতি মৃত্যুর ঘটনায় চাটমোহর থানায় দায়েরকৃত একটি মামলার আসামী হিসেবে পলাতক ছিলেন তিনি।
পুলিশ ও দমকল বাহিনী সূত্র জানায়, রোববার দিবাগত রাত একটার দিকে ঈশ্বরদী পৌর এলাকার পশ্চিমটেংরি বাবুপাড়া এলাকায় রিক্সাযোগে শ্বশুরবাড়িতে ফেরার পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আরিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে গত ১১ নভম্বর রাতে আমির হোসেন বাবলুর মালিকানাধীন ‘চাটমোহর ইসলামিক হাসপাতাল’ ক্লিনিকে একজন প্রসূতির অপারেশন চলাকালে তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় কথিত চিকিৎসক সাদ্দাম হোসেন নিবির ও আসাদুজ্জামানেক ধরে পুলিশে দেয় এলাকাবাসী। তবে ওই সময় কৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন ক্লিনিক মালিক আমির হোসেন বাবলু। এরপর ১২ নভেম্বর রাতে ওই ঘটনায় মৃত প্রসূতি তাছলিমা খাতুনের বাবা মজনুর রহমান মজনু বাদী হয়ে চাটমোহর থানায় তিনজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিলেন তিনি।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে পোস্টমর্টেমের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ