ঈশ্বরদীতে নিয়ম ভেঙে সিগারেট কোম্পানির প্রকাশ্যে প্রচারনা

আপডেট: এপ্রিল ১, ২০২৪, ৯:১৯ অপরাহ্ণ


সেলিম সরদার, ঈশ্বরদী:পাবনার ঈশ্বরদীতে নিয়ম বহিভূতভাবে তামাকজাত পণ্য সিগারেটের বিজ্ঞাপন প্রচারনা করার অভিযোগ উঠেছে একটি সিগারেট কোম্পানির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে গতকাল সোমবার একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটকে দায়িত্ব দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোববার (৩১ মার্চ) বিকেলে ইউক্রেনের জাতীয় পতাকার সঙ্গে মিল রেখে হুবহু রঙ ও আদলে ঈশ্বরদীতে কয়েকটি দোকানের সামনে ‘ক্যামেল’ সিগারেটের বিজ্ঞাপনচিত্র এঁকে তামাকজাত পণ্য সিগারেটের প্রচারনা চালানোর ঘটনা ঘটে। সাধারণত সিগারেট ও তামাকজাত পণ্যের বিজ্ঞাপন বা প্রচারনা নিষিদ্ধ থাকলেও ঈশ্বরদীর সাহাপুরে রূপপুর প্রকল্পে কর্মরত রাশিয়ান নাগরিকদের আবাসন গ্রীণ সিটির সামনের কয়েকটি দোকানে এই বিজ্ঞাপনচিত্র অঙ্কন করার পর বিষয়টি রাশিয়ানদের নজরে পড়ে।

তাদের আপত্তির মুখে রূপপুর প্রকল্পের বাইক এর একজন প্রকৌশলী বিষয়টি সংশ্লিষ্ট দোকানীদের জানানোর পর সেসব দোকানের সামনে জাপান টোব্যাকো ইন্ডাস্ট্রিজ এর তামাকজাত পণ্য ক্যামেল সিগারেটের প্রচারনা চিত্র সাদা রং দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। রোববার পাবনার ঈশ্বরদীর সাহাপুরে গ্রীণ সিটির সামনের রাশিয়ান মার্কেটের আনিস ষ্টোর, আলম ক্যাফে ই রোজি, রুবেল ষ্টোরসহ কয়েকটি দোকানে ও দাশুড়িয়ার দুটি দোকানে এ ঘটনা ঘটে।

বাইক এর একজন প্রকৌশলী, কয়েকজন দোকানী, ক্যামেল সিগারেট এর মাঠকর্মী ও এরিয়া ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈশ্বরদীতে ইউক্রেনের জাতীয় পতাকার আদলে ও রঙের মিল রেখে সিগারেটের এই প্রচারণা চিত্র দেখে রাশিয়ান নাগরিকরা ক্ষুব্ধ মন্তব্য করেছেন। এ নিয়ে কোন সংকট সৃষ্টি হওয়ার আগেই দোকানে দোকানে ইউক্রেনের জাতীয় পতাকা ও রঙে সিগারেটের প্রচারণা চিত্র মুছে ফেলা হয়েছে। আবার মুছে দেওয়ার পর ইউক্রেনের নাগরিকরা তাদের দেশের পতাকার রঙ সাদা রঙে ঢেকে দেওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন বলে জানান গ্রীণসিটির সামনের বিভিন্ন দোকানীরা।

সাহাপুরের গ্রীণ সিটির সামনের আনিস স্টোরের মালিক আনিসুর রহমান বলেন, সিগারেট কোম্পানির লোকজন আমার দোকানের সামনে ক্যামেল সিগারেটের প্রচারণা ব্র্যান্ডিং করতে এসে এই বিজ্ঞাপন চিত্র এঁকেছেন। একই মন্তব্য করেন আলম ক্যাফে ই রোজি, রুবেল ষ্টোরের স্বত্বাধিকারীরা।

জাপান টোব্যাকো ইন্ডাস্ট্রিজ এর সেলস রিপ্রেজেনটেটিভ ফরিয়াদ খান বলেন, ডিষ্ট্রিবিউটরের পক্ষ থেকে আমাদের যে ভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে আমরা সেভাবে দোকানের সামনে বিজ্ঞাপনচিত্র অঙ্কন করার ব্যবস্থা করেছি। জাপান টোব্যাকো ইন্ডাস্ট্রিজ এর পাবনা জেলার ডিষ্ট্রিবিউটর খন্দকার কর্পোরেশনের স্বাত্তাধিকারী এস.কে কামরুল আলম মিলন বলেন, কোম্পানীর লোকজন এসব করতে পারে আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না।

এ বিষয়ে রূপপুর প্রকল্পের বাইক এর একজন প্রকৌশলী তার নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ করে বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যে যে যুদ্ধ চলছে তার প্রভাবে ঈশ্বরদীতে বসবাসকারী রাশিয়ান ও ইউক্রেনের নাগরিকদের মধ্যে দুরত্ব তৈরী হয়েছে। এক্ষণে রাশিয়ান মার্কেটের সামনে ইউক্রেনের জাতীয় পতাকার রঙ ও আদলে জাপান ট্যোবাকো ইন্ডাস্ট্রিজ এর ক্যামেল সিগারেটের প্রচারণার এই বিজ্ঞাপনচিত্র দেখে রাশিয়ানরা আমাদের নিকট ক্ষুব্ধ মন্তব্য করেছেন। এ মন্তব্য শুনে আমরা দ্রুততার সঙ্গে দোকানে দোকানে গিয়ে এই প্রচারণা মুছে দিতে অনুরোধ করি।

বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনের নজরে এলে তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দ্রুত তামাকজাত পণ্যের প্রচারনা বন্ধে নির্দেশ প্রদান করেন। ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবীর কুমার দাস বলেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথে সিগারেট কোম্পানী ও দোকান মালিকদের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়েছি। সোমবার ঈশ্বরদীর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) টিএম. রাহসিন কবিরকে এ বিষয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট টিএম. রাহসিন কবির এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দ্রুততম সময়ে এ বিষয়েতদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।