ঈশ্বরদীতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চিঠি

আপডেট: জানুয়ারি ৩১, ২০২২, ৯:৪৭ অপরাহ্ণ

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:


পাবনার ঈশ্বরদীতে অনুমোদন না নিয়ে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিতির অভিযোগে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে ঈশ্বরদী উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। ঈশ্বরদী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মৃণাল কান্তি এ চিঠি পাঠিয়েছেন।

সোমবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুনছুর রহমান চিঠি প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করেন। উপজেলা শিক্ষা অফিসের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ঈশ্বরদী পৌর এলাকার ইস্তা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলাম গত ৮ জানুয়ারী ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষের নিকট কোন প্রকার ছুটি না চেয়ে কর্তৃপক্ষের অগোচরে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন।

ছুটি মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সরেজমিন অভিযোগের সত্যতা পান। তিনি প্রধান শিক্ষকের অনুপস্থিতির বিষয়ে প্রতিবেদন লিখে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট জমা দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ওই প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়। তার জবাব সন্তোষজনক না হওয়ার কারনে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মৃণাল কান্তি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে চিঠিটি পাঠান।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলাম বলেন, অফিসের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির কারনে এ ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মৃণাল কান্তি বলেন, এ ধরনের অভিযোগের বিষয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের এখতিয়ার উপপরিচালকের রয়েছে। বিষয়টি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে আমি অবহিত করেছি। পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুনছুর রহমান বলেন, দুদিন আগেই চিঠিটি পেয়েছি, মাঝে দুদিন ছুটি ছিল, এখন অফিস খুলেছে, ফাইল প্রসেস করে নিয়ম অনুযায়ী রাজশাহীতে বিভাগীয় শিক্ষা অফিসের উপপরিচালকের কাছে পাঠানো হবে, তিনিই ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।