ঈশ্বরদীতে বাবা-মাকে মারপিটের অভিযোগে প্রবাসী ছেলে গ্রেফতার

আপডেট: অক্টোবর ২৮, ২০১৯, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি


ঈশ্বরদীতে বাবা ও মাকে শারিরিকভাবে নির্যাতনকারী সৌদি ফেরত প্রবাসী ছেলে ফিরোজ হাসানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার ঈশ্বরদীর শৈলপাড়া এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। ফিরোজ ওই এলাকার আবু তালেব ও ফিরোজা বেগম দম্পতির ছেলে।
আহত বাবা-মা, পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সম্প্রতি সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরে মায়ের থেকে থেকে ৫০ হাজার টাকা ধার নেয় ছেলে ফিরোজ। এদিকে বাবা-মায়ের মতামত ছাড়াই মামা আবদুল করিমকে সঙ্গে নিয়ে ফিরোজ আটঘোরিয়া এলাকায় বিয়ে করে। ছেলের নির্যাতনে আহত আবু তালেব জানান, গতকাল রোববার আমার স্ত্রীর কাছ থেকে ধার করা টাকা না দিয়ে সে সৌদি আরব চলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় ধারের টাকা ফেরত চাইলে প্রথমে সে তার মাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল ও পরে শারিরিকভাবে নির্যাতন করে, আমি এ দৃশ্য দেখে এগিয়ে গেলে ছেলে হয়ে সে আমার গায়েও হাত তোলে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় বাবা আবু তালেব ও মা ফিরোজা বেগমকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে চিকিৎসা করান।
এ ঘটনায় ফিরোজা বেগম বাদী হয়ে তার ছেলের বিরুদ্ধে ঈশ্বরদী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ছেলে ফিরোজকে গ্রেফতার করে।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বাবা-মাকে নির্যাতনকারী ছেলে ফিরোজ হাসানকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।