ঈশ্বরদীতে মন্দিরের কমিটি গঠন স্থগিত পুলিশি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত

আপডেট: মে ১৪, ২০২২, ৯:২৫ অপরাহ্ণ

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:


পাবনার ঈশ্বরদীতে দশ বছর পর মন্দিরের কমিটি গঠন করতে হঠাৎ ডাকা সাধারণ সভা পন্ড হয়ে গেছে। শুক্রবার (১৩ মে) রাত ৯টার দিকে ঈশ্বরদীর ঠাকুরবাড়ি বাড়োয়াড়ি মন্দির প্রাঙ্গনে এ ঘটনা ঘটে।

আয়োজিত সাধারণ সভায় পুরাতন কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি গঠন প্রক্রিয়া শুরুর সময় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এসময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। শেষ পর্যন্ত কমিটি গঠন ছাড়াই সাধারণ সভা স্থগিত করা হয়।

ঈশ্বরদীর ঠাকুরবাড়ি ও মৌবাড়িয়ার দুটি মন্দির নিয়ে গঠিত ‘ঠাকুরবাড়ি-মৌবাড়িয়া বাড়োয়াড়ী মন্দির কমিটি’ গঠিত হয় প্রায় দশ বছর আগে। দুটি মন্দিরের সদস্যগণ ও হিন্দু সম্প্রদায়ের স্থানীয় বাসিন্দারা প্রতিবছর এই কমিটি নতুন করে গঠন করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এই অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যায় সাধারণ সভা আহবান করেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার কুন্ডু।

সভা শুরুর কিছুক্ষণ পরই সাধারণ সদস্যগণ পুরাতন কমিটি বিলুপ্ত করে আহবায়ক কমিটি গঠনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের প্রস্তাব ও দাবি জানান। এসময় স্বপন কুমার কুন্ডু পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করার উদ্যোগ নিলে হট্টগোল শুরু হয়। এক পর্যায়ে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় ও মারমূখি অবস্থার সৃষ্টি হলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে সাধারণ সভা ও কমিটি গঠন প্রক্রিয়া ভন্ডুল হয়ে যায়।

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুনিল চক্রবর্তি বলেন, দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বর্তমান কমিটি স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে ঠাকুরবাড়ি-মৌবাড়িয়া বাড়োয়াড়ী মন্দির কমিটি পরিচালনা করে আসছে। সাধারণ সদস্যরা এ অবস্থার পরিবর্তন দাবি করলে উত্তপ্ত ও মারমূখি পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

খবর পেয়ে ঈশ্বরদী পৌরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা মন্দিরে এসে তাদের সঙ্গে আলাপ করে সংকট নিরসনের করার কথা বলেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত ঈশ্বরদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুন্নবী জানান, পুলিশ সদস্যরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ