ঈশ্বরদীতে শ্বশুরের ঘরে পুত্রবধূর চুরি

আপডেট: নভেম্বর ১৫, ২০১৯, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি


পাবনার ঈশ্বরদীতে শ্বশুরের ঘরে দূর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে এক পুত্রবধূ। শ্বশুরের ঘর থেকে নগদ ৫ লাখ ১০ হাজার ২৯২ টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে নিয়ে পালানোর সময় পথিমধ্যে স্থানীয় জনতার হাতে মালামালসহ আটক হয় ওই গৃহবধূ। এ ঘটনায় ঈশ্বরদীতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে, থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা করেছেন শ্বশুর। গত বুধবার রাতে ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নের আথাইল শিমুল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও লিখিত অভিযোগ সুত্র জানায়, আথাইল শিমুল গ্রামের আবদুল বারী প্রধান বুধবার রাত ৮টার দিকে অন্যান্য দিনের মতো বাড়ির বাইরে ছিলেন। সেই সময় তার প্রবাসী ছেলের বউ মোছা. রানী খাতুন তার বাবার বাড়ির লোকজন নিয়ে এসে শ্বশুর আ. বারী প্রধানের ঘরের দরজা ভেঙে টেবিলের ড্রয়ারে থাকা ৫ লাখ ১০ হাজার ২৯২ টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এতো জিনিসপত্র নিয়ে রাতে এভাবে যাওয়ার সময় গ্রামের মানুষের সন্দেহ হলে তারা গৃহবধূ রানী খাতুনসহ অন্যদের আটক করে। খবর পেয়ে রানী খাতুনের লোকজন এসে তাদের ছড়িয়ে নেয়। এলাকায় চোর ধরা পড়েছে এমন খবর চাউর হয়ে গেলে গ্রামে হুলস্থুল পড়ে যায়। খবর পেয়ে বারী প্রধান তার বাড়িতে গিয়ে ঘরের দরজা ভাঙা দেখতে পান। ঘরের ভেতর প্রবেশ করেই বুঝতে পারেন তার নগদ টাকাসহ অন্যান্য মালামাল চুরি হয়ে গেছে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানকে জানান। রাতেই আবদুল বারী প্রধান বাদী হয়ে পুত্রবধূকে প্রধান আসামী করে ঈশ্বরদী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
প্রসঙ্গতঃ ছেলে মতিউর রহমান বিদেশে থাকায় পুত্রবধূ রানী খাতুনের সঙ্গে শ্বশুর আবদুল বারী প্রধানসহ অন্যদের সম্পর্ক ভাল যাচ্ছিল না। স্থানীয় ইউপি সদস্য আনিসুর রহমান জানান, বিষয়টি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে এর সঠিক বিচার হওয়া উচিত।
এবিষয়ে দাশুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. বকুল সরদার বলেন, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। একজন পুত্রবধূ হয়ে শ্বশুরের ঘরে এভাবে চুরি করবে এটা সত্যিই দুঃখজনক। সম্পর্কের অবনতির কারণেই প্রতিশোধ নিয়ে এমন ঘটনা ঘটতে পারে। আইনের মাধ্যমে বিচার হওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
ঈশ্বরদী থানার ওসি (তদন্ত) অরবিন্দ সরকার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। স্থানীয় এলাবাসীও ঘটনার সাক্ষ্য দিয়েছে। অধিকতর তদন্ত চলছে, এবিষয়ে অবশ্যই প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ