উগান্ডায় অস্ত্রলুট করে জেল পালিয়েছে ২১৯ বন্দি

আপডেট: September 17, 2020, 8:13 pm

সোনার দেশ ডেস্ক


উগান্ডার একটি জেল থেকে ২১৯ বন্দি পালিয়ে গেছে। যাওয়ার সময় অন্তত ১৪টি বন্দুকও সঙ্গে নিয়েছে। ঘটনার পর পর তাদের ধরতে নিরাপত্তা বাহিনী অভিযান চালায়, তাতে দুজন বন্দি নিহতের খবর নিশ্চিত করেছে সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।
ব্রিগেডিয়ার ফ্লাভিয়া বাইকওয়াসো বলেছেন, উত্তরপূর্বাঞ্চলের কারামোজার কারাগার থেকে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতে কারারক্ষীদের নজর এড়িয়ে পালিয়ে যায় বন্দিরা। এর আগে কারাগারের অস্ত্রাগার থেকে ১৫টি একে-৪৭ রাইফেল, ২০টি ম্যাগাজিন ও আরও কিছু গোলাবারুদ লুট করে তারা।
পালানো বন্দিদের মধ্যে খুনী, ডাকাত ও ধর্ষক রয়েছেন বললেন ফ্লাভিয়া, ‘এটা বিশাল একটা ব্যাপার, তারা ছিল ভয়ঙ্কর অপরাধী।’ পলাতক অপরাধীদের ধরতে অভিযান চালিয়ে দুজনকে হত্যা করে নিরাপত্তা বাহিনী এবং আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে।
পলাতক বন্দিদের হাতে অস্ত্র ছিল এবং সারা রাত ধরে অন্ধকারে লুকিয়ে ছিল, তাই তল্লাশি অভিযান কঠিন হয়ে পড়েছিল বললেন সামরিক এই নারী কর্মকর্তা, ‘তারা সারা রাত গায়েব ছিল। তাই আমাদের তল্লাশি অভিযান জটিল হয়ে পড়েছিল। কিন্তু আমরা তাদের ধরবোই।’
মার্চে করোনা মহামারির পর কারাগার থেকে বন্দিদের পালানোর তৃতীয় ঘটনা ঘটলো আফ্রিকার দেশটিতে। গাদাগাদির কারণে উগান্ডান কারাগারগুলোতে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে। অন্তত তিন বন্দির করোনা শনাক্ত হয়েছে। আগস্ট পর্যন্ত পাঁচ মাসে উগান্ডায় বন্দির সংখ্যা ১০ শতাংশ বেড়ে ৬৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি