উত্তরবঙ্গের পণ্য পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০১৬, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



প্রশাসনের আশ্বাসে ধর্মঘট স্থগিত করেছে উত্তরবঙ্গ ট্রাক, ট্যাংকলরী, কাভার্ডভ্যান ও পিকআপ মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ আশ্বাস দিলে সংগঠনটি ধর্মঘট স্থগিত করে।
রাস্তায় ট্রাক, ট্যাংকলরী, কাভার্ডভ্যান ও পিকআপ ভ্যানের কাগজপত্র, ডাইভিং লাইসেন্স চেকিংয়ের নামে পুলিশের চাঁদাবাজি ও হয়রানি বন্ধ; ট্রাক, ট্যাংকলরী, কাভার্ডভ্যান ও পিকআপ এর বাম্পার সাইড এ্যাঙ্গেল এবং হুক খোলার সরকারি আদেশ প্রত্যাহার; ট্যাক্স, টোকেন, ফিটনেস, রুট পারমিটের বকেয়া সুদ মওকুফ, ওজন স্কেলের নামে চাঁদাবাজি ও হয়রানি বন্ধ করা, মহাসড়কে অবৈধ যান চলাচল বন্ধ করা, ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়নের সময় হয়রানি বন্ধ করা, নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স ও হ্যাবি লাইসেন্স সহজ শর্তে প্রদান করার দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে এই কর্মবিরতি শুরু হয়। এতে উত্তরাঞ্চলের পণ্যবাহী পরিবহনগুলো চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। কাঁচামাল ও পণ্য নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েন ব্যবসায়ীরা।
গতকাল বিকেল সাড়ে তিনটায় উত্তরবঙ্গের ১১ জেলার ট্রাক মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল হান্নান। এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআিইজি এম খুরশিদ হোসেন, গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআইয়ের রাজশাহীর প্রধান লে. কর্নেল শফিউল ইমাম, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মুনীর হোসেনসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন, ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুল মান্নান আকন্দ, রাজশাহী জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলাম, জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাইনুল ইসলাম মানাসহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার নেতাকর্মীরা।
বৈঠকে বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল হান্নান সংগঠনের নেতাদের আশ্বাস দিয়ে বলেন, সাত দফার মধ্যে যেসব দাবি স্থানীয় প্রশাসন সমাধান করতে পারবে তা দ্রুত সমাধান করা হবে। আইন সংশি¬ষ্ট যেসব দাবি স্থানীয়ভাবে সমাধান সম্ভব নই, তা কেন্দ্রীয় সরকারকে অবহিত করা হবে। পরে সংগঠনটির পক্ষ থেকে বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি ও ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুল মান্নান আকন্দ সাংবাদিকদের কাছে কর্মবিরতি স্থগিত করার বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ