উদ্বোধন হলো অ্যাপ, মনোনয়নপত্র ঘরে বসেই জমা দেয়া যাবে

আপডেট: নভেম্বর ১২, ২০২৩, ১:৩২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই নির্বাচন কমিশন ‘অনলাইন নমিনেশন সাবমিশন সিস্টেম বা ওএনএসএস এবং স্মার্ট ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট অ্যাপ’ উদ্বোধন করেছেন।

রোববার (১২ নভেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে এ অ্যাপ উদ্বোধন করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. আহসান হাবিব খান, রাশেদা সুলতানা, মো. আলমগীর, মো. আনিছুর রহমান ও নির্বাচন কমিশন সচিব সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

এ সময় ইসি আহসান হাবিব বলেন, নির্বাচন কমিশন প্রযুক্তি নির্ভর। অতীতে ঢাকঢোল বাজিয়ে, হাতিঘোড়া নিয়ে মনোনয়ন সাবমিশন করা হতো। এরফলে আচরণবিধি ভঙ্গ হতো। এছাড়াও নমিনেশন সাবমিশনে বাধা দেয়া হতো। তবে এ অ্যাপসে ওই সমস্যা থাকবে না। মনোনয়নপত্র ঘরে বসেই জমা দেয়া যাবে। ভোটার তাদের যোগ্য প্রার্থী বেছে নিতে পারবেন। আমরা ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছি- এটা স্বচ্ছতার প্রতীক। এ অ্যাপ ফেয়ার ও ট্রান্সপারেন্ট। আশা করি, অ্যাপসের সুফল ভোগ করবো। এ উদ্যোগ বিদেশেও প্রসংশিত হবে।

এ অ্যাপস ব্যবহার করে বিভাগওয়ারি আসনের তথ্য, যেমন- মোট ভোটার, মোট আসন, আসনের প্রার্থী, প্রার্থীদের বিস্তারিত তথ্য (হলফনামা, আয়কর সম্পর্কিত তথ্য, নির্বাচনী ব্যয় ও ব্যক্তিগত সম্পদের বিবরণী) জানা যাবে।

এছাড়া, অ্যাপস ব্যবহার করে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলসমূহের তথ্য জানা যাবে এবং সমসাময়িক তথ্যাবলি ‘নোটিশ’ আকারেও প্রদর্শিত হবে। অ্যাপসটির সাহায্যে প্রতি দু’ঘণ্টা অন্তর চলমান ভোটিং কার্যক্রমের নির্বাচনী ফলের সার্বিক অবস্থাসহ (status- যেমন: ‘গণনা চলে’ ইত্যাদি) ‘ফলাফল বিশ্লেষণ’ নামক অপশনের মাধ্যমে ১ জন ভোটার পূর্বতন নির্বাচন ও বর্তমান নির্বাচনের ফলাফলের গ্রাফিক্যাল বর্ণনাও পাবে ন।

এ নির্বাচন কমিশনার জানান, এরই ধারাবাহিকতায় মনোনয়নপত্র অনলাইনে দাখিল ও মোবাইল অ্যাপস এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ হবে। নির্বাচন ব্যবস্থাপনাও এর মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ যুগে যুক্ত হল। তফসিল ঘোষণার পর তা সবার জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

এর ফলে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় শোডাউন, মিছিল করে আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রবণতা যেমন রোধ হবে, তেমনি নেমিনেশন জমাদানে বাধা দেয়া অথবা প্রত্যাহারের জন্য চাপ দেয়া সম্ভব হবে না। সংসদ নির্বাচন ছাড়াও স্থানীয় সরকারের যে কোনো নির্বাচনে মনোনয়ন জমাসহ নির্বাচনী সেবা সহজতর হবে। এ অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে নির্বাচনী হলফনামা, ভোটকেন্দ্র সংক্রান্ত তথ্য, নির্বাচনী তথ্য মিলবে।

তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ