উপমহাদেশের ‘বিরল’ নেতা শেখ হাসিনা

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০১৬, ১১:৪৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক
আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে অংশ নিয়ে বিদেশি রাজনীতিবিদরা বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও আঞ্চলিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন।
তাদের কেউ কেউ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীকে পুরো ভারতীয় উপমহাদেশের নেতা আখ্যা দিয়েছেন।
শনিবার সকালে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেশের অন্যতম পুরনো ও মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দলটির ২০তম জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে চিন, ভারত, রাশিয়া ও যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের অন্তত ৫৫ জন নেতা অংশ নেন।
আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে তাঁর দল ও সরকারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখছেন ভারতীয় জনতা পার্টি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট বিনয় প্রভাকর।
আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে তাঁর দল ও সরকারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখছেন ভারতীয় জনতা পার্টি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট বিনয় প্রভাকর।
ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. বিনয় প্রভাকর সহস্রবুদ্ধে শেখ হাসিনাকে উপমহাদেশের বিরল নেতা আখ্যা দেন।
তাকে জননেত্রী সম্বোধন করে বক্তব্য শুরু করে এই বিজেপি নেতা বলেন, “সেসব বিরল নেতাদের অন্যতম আপনি, যাকে সত্যিকার অর্থে জননেত্রী বলা যায়।
“আপনি সত্যিকারের জননেত্রী; শুধু আপনার দেশের নয়, বরং পুরো উপমহাদেশের ও বিশ্বের মানুষের।”
আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য দেন ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ও রাজ্যসভার বিরোধী দলীয় নেতা গোলাম নবী আজাদ।
আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য দেন ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ও রাজ্যসভার বিরোধী দলীয় নেতা গোলাম নবী আজাদ।
ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেসের নেতা গোলাম নবী আজাদও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ভারতে সব দল নির্বিশেষে তার অবস্থানকে সাধুবাদ জানায়।
শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আমরা দেখতে চাই, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আপনি হবেন অন্যতম শীর্ষ নেতা; সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকি থেকে এই উপমহাদেশকে রক্ষা করবেন।”
চিনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের ভাইস-মিনিস্টার ঝেং শিয়াওসং বলেন, ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে এই সম্মেলনে যোগ দিতে পেরে তিনি আনন্দিত।
তিনি বলেন, “শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে এবং স্থিতিশীলতা অব্যাহত আছে।”
চিনা কমিউনিস্ট পার্টি ও আওয়ামী লীগের মধ্যে ঘনিষ্ট সম্পর্ক রয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, তার দল বাংলাদেশ-চিন সম্পর্ক গভীরে নিতে প্রস্তুত।- বিডিনিউজ