উৎসবমুখর পরিবেশে নগরীতে নবান্ন উৎসব পালিত

আপডেট: নভেম্বর ১৬, ২০১৬, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



বাঙালি জাতির ঐতিহ্যবাহি নবান্ন উৎসব ছিল গতকাল মঙ্গলবার। উৎসাহ-উদ্দীপনা ও অনুষ্ঠানাদির মধ্য দিয়ে জাঁকজমকপূর্ণভাবে রাজশাহীতে এ উৎসব পালিত হয়। নবান্ন উৎসব বাঙালি সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। গ্রামবাঙলার সার্বজনীন ও অসাম্প্রদায়িক এ উৎসবটি দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বেশেষে পালিত হয়ে আসছে আবহমানকাল থেকে।
জেলা প্রশাসন : রাজশাহী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় সিএন্ডবি মোড় থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালির উদ্বোধন করেন রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আমিনুল ইসলাম। এতে উপস্থিত থেকে র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার  আমিনুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীন, রাজশাহীর পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঁইঞা, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক হবিবুর রহমান, রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দেব দুলাল ঢালী ও রাজশাহী কবি কুঞ্জের সভাপতি প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামানিক প্রমুখ।
র‌্যালি শেষে বেলা ১১টায় শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় নবান্ন পিঠা উৎসবে গুরুত্ব তুলে ধরে বক্তব্য দেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আমিনুল ইসলাম, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মনির হোসেন, রাজশাহী পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ভুইয়া ও কবি কুঞ্জের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামানিক প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে বাঙালির ঐতিহ্য তুলে ধরে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী নবান্ন উৎসব উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের এগ্রোনমী এন্ড এগ্রিকালচারাল এক্সটেনশন বিভাগের উদ্যোগে ক্যাম্পাসে শোভাযাত্রা ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টায় নবান্ন উৎসব উদযাপন উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রায় আবহমানকাল থেকে চলে গ্রাম-বাংলার কৃষিজীবী মানুষের আবহ তুলে ধরা হয়। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবন চত্বর থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবারো সেখান গিয়ে শেষ হয়।
পরে সিনেট ভবন চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় ধান মাড়াই ও নবান্নের পিঠা উৎসব। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন এই আয়োজনের উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ডিন প্রফেসর মো. সাইফুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন করেন এগ্রোনমি এন্ড এগ্রিকালচারাল এক্সটেনশন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর আমিনুল হক। নবান্ন উৎসব ছাড়াও এদিন এগ্রোনমী এন্ড এগ্রিকালচারাল এক্সটেনশন বিভাগের মাস্টার্সের বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়।
রাজশাহী কলেজ : বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী কলেজে জাতীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সাড়ম্বরে নবান্ন উৎসব পালন করা হয়েছে। ‘নতুন ধান্যে হবে নবান্ন’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সকাল সাড়ে ১০টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের প্রধান প্রধান রাস্তা প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। র‌্যালি শেষে কলেজ মাঠে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কৃষক, ধান কাটা ও ধান ভানা বিষয়ক লোকসংগীত পরিবেশন করা হয়। আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মনোজ্ঞ দলীয় নৃত্য নবান্ন উৎসবের অন্যতম প্রধান আকর্ষণ ছিল। রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান বাঙালীর এ কালচারকে লালন করার আহ্বান জানান। উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আল ফারুক চৌধুরী সকলকে মনে-প্রাণে বাঙালী হওয়ার জন্য অনুপ্রাণিত করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ